মন্দিরে চুরি কাণ্ডে গ্রেপ্তার স্বর্ণ ব্যবসায়ী

97

আসানসোল: গত ১৭ ফেব্রুয়ারি আসানসোলের মহিশীলা কলোনীর ক্ষুদিরাম পার্ক এলাকার এক কালি মন্দির থেকে প্রতিমার সোনার গয়না চুরি যায়। অভিযোগ পেয়ে ঘটনার তদন্তে নামে আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ। পুলিশ তদন্তে নেমে এলাকার সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখে। তারপরই চোরের হদিশ পায় পুলিশ। তবে চোরকে সামনে থেকে দেখে তাজ্জব হয়ে যায় পুলিশ। যে মন্দির থেকে গয়না চুরি করেছে সে বিশেষভাবে সক্ষম। পাশের জেলা পুরুলিয়ার মধুকুণ্ডায় তাঁর বাড়ি। ধৃতের নাম কালু। সে ল্যাংড়া কালু নামেই বেশি পরিচিত। কালুকে গ্রেপ্তার করার পরে উদ্ধার হয়েছে প্রায় ২ লক্ষ টাকা সোনার গয়না।

কালুকে জেরা করে ও তার সূত্র ধরে পূর্ব বর্ধমানের এক সোনা ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃত ব্যবসায়ীর নাম অভিজিত বর্মা। তাঁর বাড়ি গলসীতে। কালুর কাছে চোরাই সোনা এই ব্যবসায়ী কিনেছিল বলে পুলিশ জানতে পারে। পুলিশের জেরায় ধৃত কালু স্বীকার করেছে সেই সোনা চুরি করেছে। চোরাই সোনা বেশ কয়েকবার গলসীর ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে সে বিক্রি করেছে। মঙ্গলবার সেই সোনা ব্যবসায়ীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। তার কাছ থেকে চোরাই সোনা উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার ধৃত সোনা ব্যবসায়ীকে আসানসোল আদালতে তোলা হলে বিচারক তার জামিন নাকচ করে জেল হাজতের নির্দেশ দেন।

- Advertisement -