উটপাখির সঙ্গে কার তুলনা করলেন রাজ্যপাল? জানুন…

181

বাগডোগরা: উটপাখির মতো মুখ গুঁজে সত্যকে অস্বীকার করার প্রবণতা থেকে সরে আসা উচিত রাজ্য সরকারের। সোমবারই কলকাতা হাইকোর্ট ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় কেন্দ্রীয় মানবাধিকার কমিশনকে দিয়ে তদন্তের নির্দেশ পুনর্বিবেচনার জন্য রাজ্যের আর্জি খারিজ করে দিয়েছে। দার্জিলিং সফরে এসে বাগডোগরা বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে এই রায় নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে রাজ্যপাল জানান, তিনি দিল্লি যাত্রার আগে একই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছিলেন। সরকার জানিয়ে দিচ্ছে কোনও ঘটনা ঘটেনি। এই উটপাখির মতো প্রবণতা বন্ধ হওয়া উচিত। তাঁর অভিযোগ, রাজ্য সরকার কোনও অভিযোগেরই তদন্তে নারাজ। এই প্রবণতাও মারাত্মক। তদন্ত না হলে সরকারের গণতান্ত্রিক চরিত্রটাই নষ্ট হবে বলে জানান তিনি।

রাজ্যপাল এদিন ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, বারবার বলেও ভোট পরবর্তী হিংসা থামানো বা ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি ফেরানো অথবা ক্ষতিপূরণ দেওয়া যায়নি। উলটে সংবিধান, রাজ্যপাল ও কেন্দ্রের বিরোধিতা করছে রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারকে নিশানা করে তিনি বলেন, ‘ভোটের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় লাগামছাড়া সন্ত্রাস চলছে। নাগরিকদের মৌলিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে। স্বাধীনতার পর থেকে এমন সন্ত্রাস দেখা যায়নি।’ রাজ্যপালের অভিযোগ, চার রাজ্যে ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মধ্যে শুধু বাংলাতেই সন্ত্রাসের আবহ চলছে। রাজ্যের সরকার ভোট পরবর্তী হিংসায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ায়নি বলেও সরব হন রাজ্যপাল। তিনি জানান, অসহায় মানুষ পুলিশকেও অভিযোগ জানাতে ভয় পাচ্ছেন। সরকার হিংসা নিয়ে কেন চুপ এদিন সেই প্রশ্ন ফের একবার তোলেন তিনি। বলেন, ‘নির্বাচনি হিংসা নিয়ে কোনও তদন্ত হয়নি। কেউ গ্রেপ্তার হননি। সরকার বরং আত্মমন্থন করুক।’

- Advertisement -