ধনকড়কে ‘দূর্নীতিগ্রস্ত’ বললেন মমতা, পালটা রাজ্যপালের

130

কলকাতা: জগদীপ ধনকরের মেয়াদকালের শুরু থেকেই রাজ্য-রাজ্যপাল সম্পর্ক একপ্রকার আদায় কাঁচকলায়। মাঝে এই সম্পর্ক কিছুটা স্বাভাবিক হলেও তা অবশ্য দীর্ঘস্থায়ী হয়নি কখনওই। অন্যদিকে, রাজ্য-রাজ্যপাল সম্পর্কের টানাপোড়েনে মুখ্য বিষয় ছিল রাজনীতি। তবে এবার তা চরমে পৌঁছোলো। এদিন রাজ্যপাল ধনকরের প্রতি আক্রমণ শানিয়ে তাঁকে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বলে মন্তব্য করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ১৯৯৬ সালের হাওয়ালা-জৈন কেলেঙ্কারির চার্জশিটে নাম জগদীপ ধনকরের নাম ছিল৷

রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত এতদিন সীমাবদ্ধ ছিল টুইট এবং চিঠিতে। একাধিক সময় রাজনৈতিক ইস্যুতে একে অপরের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলে ধরতেন। এবার সেই সংঘাত আরও জোড়াল হল। সোমবার নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করে বলেন, ‘তিনি (রাজ্যপাল) একজন দুর্নীতিগ্রস্ত মানুষ’। হাওয়ালা-জৈন কেলেঙ্কারির চার্জশিটে নাম ছিল জগদীপ ধনকরের৷ আদালত থেকে সেই নাম বাদ দেওয়ানো হয়। এনিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা হয়। সেই মামলা এখনও চলছে। এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী দাবি করে বলেন, ‘রাজ্যপালের বিরুদ্ধে আগে তদন্ত হওয়া উচিত৷ রাজ্যপালের সফরের সময় কী হচ্ছে, কতটা টাকা খরচ হচ্ছে, এই নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।’

- Advertisement -

এরপরই উত্তরবঙ্গ থেকে কলকাতায় রাজভবনে ফিরে সাংবাদিক সম্মেলন করেন রাজ্যপাল। প্রতিটি অভিযোগ ধরে ধরে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগের জবাব দিয়েছেন তিনি। পরিস্কার জানিয়েছেন কোনও কেলেঙ্কারিতে তাঁর নাম নেই।