নয়াদিল্লি, ২৮ মার্চঃ তথ্য চুরি কেলেহ্কারি নিয়ে গত শুক্রবারের পর বুধবার ফের  ফেসবুককে নোটিস পাঠাল কেন্দ্র। ৭ এপ্রিলের মধ্যে নোটিসের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

ভারতীয় ভোটারদের ব্যক্তিগত তথ্য কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা বা ওই ধরণের কোনো সংস্থাকে সরবরাহ করা হয়েছে কিনা এবং করা হলে তা কিভাবে করা হয়েছে? এছাড়াও ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখা এবং ব্যক্তিগত তথ্যের অপব্যবহার রুখতে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা জানতে চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বৈদ্যুতিন ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রক। এই তথ্য নিয়ে ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ বিভিন্ন দেশের নির্বাচন প্রভাবিত করা হয়েছে বলে অভিযোগ। কোনও সংস্থা ফেসবুকে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য নিয়ে ভারতের নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিল কি না, তারই জবাব দিতে বলেছে কেন্দ্র।

ফেসবুকের তথ্য ফাঁসের কারিগর কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার প্রাক্তন কর্মী ক্রিস্টোফার উইলি বুধবার আরও কয়েক কিস্তি নতুন তথ্য ফাঁস করেছেন। আর তাতেই নাম জড়িয়েছে নীতীশ কুমারের। উইলি দাবি করেন, ২০১০ সালে বিহার নির্বাচনের আগে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা জেডিইউয়ের হয়ে কাজ করেছে। অ্যানালিটিকার তথ্য ও বিশ্লেষনের সাহায্য় নিয়েই নীতীশ সেবার ভোটের ময়দানে রণকৌশল ঠিক করেছিলেন বলেও দাবি উইলির। তিনি আরও জানান, কেবল জেডিইউ নয়, ভারতের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের হয়ে অ্যানালিটিকা তথ্য সংগ্রহ, সমীক্ষা চালানো ও বিশ্লেষণের কাজ করেছে। তবে জেডিইউ ছাড়া অন্য কোনো দলের নাম প্রকাশ করেননি উইলি।