বনদপ্তরের জমিতে কংক্রিটের রাস্তা তৈরির অভিযোগ গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে

53

সিতাই: বনদপ্তরের জমিতে গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে কংক্রিটের রাস্তা তৈরি। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে সিতাই বিধানসভার অন্তর্গত দিনহাটা ১ ব্লকের গোসানিমারি ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার শালবন সংলগ্ন খালিসা গোসানিমারিতে। ঘটনাকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এদিন পুলিশের উপস্থিতিতে জেসিপি দিয়ে সেই রাস্তা ভেঙে দিল বনদপ্তর।

গ্রাম পঞ্চায়েত সূত্রে জানা গিয়েছে, খালিসা গোসানিমারি এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি শালবনের ধারে অবস্থিত। ওই পরিবারগুলির বাসিন্দাদের যাতায়াতের কোনও রাস্তা নেই। তাই গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে বাসিন্দাদের দেখানো সীমানায় সম্প্রতি কংক্রিটের রাস্তা তৈরি করে দেওয়া হয়। কিন্তু তাতে বনদপ্তর কর্তৃপক্ষ আপত্তি জানায়। এরপর বনদপ্তরের তরফে এক্ষেত্রে গ্রাম পঞ্চায়েতকে আইনি নোটিশ দেওয়া হয়। শালবনের সীমানা মেপে দেখা হয়। এদিন বন দপ্তরের তরফে জেসিপি দিয়ে ওই নবনির্মিত কংক্রিটের রাস্তা ভেঙে দেওয়া হয়।

- Advertisement -

স্থানীয় গোবিন্দ মন্ডল দাবি করে বলেন, ‘আমাদের খতিয়ান ভুক্ত জমিতে গ্রাম পঞ্চায়েত যাতায়াতের জন্য রাস্তা তৈরি করেছে বলে আমরা জানি। কিন্তু এদিন বনদপ্তর রাস্তাটি যন্ত্র চালিয়ে ভেঙে দিল। তবে, অবশেষে পুলিশ বাহিনী, বন দপ্তরের আধিকারিক সহ প্রচুর সংখ্যক কর্মীর উপস্থিতিতে এই রাস্তা ভাঙার কাজ সম্পন্ন হয়।‘

স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সুধাংশু চন্দ্র রায় বলেন, ‘আমরা বাসিন্দাদের কথা অনুযায়ী সম্প্রতি রাস্তাটি তৈরি করি। কিন্তু রাস্তাটি অবৈধ বলে দাবি করে বনদপ্তর এদিন ভেঙে দিয়েছে।‘

বন দপ্তরের কোচবিহার রেঞ্জ অফিসার চন্দন ভট্টাচার্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, ‘বন দপ্তরের জমিতে এই অবৈধ নির্মাণ সংক্রান্ত বিষয়ে আইনি নোটিশ দিয়ে এদিন তা ভেঙে দেওয়া হয়।‘