তলবি সভায় আস্থা অর্জনে ব্যর্থ, অপসারিত প্রধান সহ উপ-প্রধান

174

সামসী: তলবি সভায় আস্থা অর্জনে ব্যর্থ। বিপক্ষে ভোট পড়ল ১০টি। স্বাভাবিকভাবেই অনাস্থার প্রেক্ষিতে ডাকা তলবি সভায় পদ থেকে অপসারিত হলেন গৌড়হন্ড পঞ্চায়েতর প্রধান সহ উপ-প্রধান।

বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে চাঁচল-২ ব্লকের গৌড়হন্ড পঞ্চায়েতের ১৫টি আসনের মধ্যে ৯টি আসনই ছিল বিজেপির দখলে। অন্যদিকে ৩টি আসন ছিল তৃণমূলের দখলে। দুটি আসনে জয় পেয়েছিল কংগ্রেস এবং একটি আসন পেয়েছিল সিপিএম। এই পরিস্থিতিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতায় ভর করে বোর্ড গঠন করেছিল বিজেপি। প্রধান হন পুষ্প ওরাওঁ এবং উপ-প্রধানের দায়িত্ব বর্তায় জয়ন্ত সরকারের ওপর।

- Advertisement -

যদিও বিধানসভা ভোট মিটতেই দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠতে শুরু করে প্রধান সহ উপ-প্রধানের বিরুদ্ধে। এই পরিস্থিতিতে বিরোধীদের সঙ্গে হাত মেলায় বিজেপির ৪ পঞ্চায়েত সদস্য। এরপরই জুলাই মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রধান সহ উপ-প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন তৃণমূল, বিজেপি, কংগ্রেস ও সিপিএমের ১০ পঞ্চায়েত সদস্য। অনাস্থা প্রস্তাব পেশ হতেই ২৫ অগাস্ট তলবি সভা ডাকেন চাঁচল-২ এর বিডিও। যদিও অনাস্থার বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন প্রধান ও উপ-প্রধান। তলবি সভা স্থগিতের নির্দেশ দেয় আদালত। এরপরই পালটা মামলা করেন ১০ পঞ্চায়েত সদস্য। অবশেষে আদালতের তরফে তলবি সভার দিনস্থির হয় ৯সেপ্টেম্বর। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক এদিন তলবি সভা বসে। যদিও প্রধান, উপ-প্রধান সহ পাঁচ বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্য এদিন অনুপস্থিত ছিলেন।

চাঁচল-২ এর বিডিও দিব্যজোতি দাস জানান, গৌড়হন্ড পঞ্চায়েতে এদিন সুষ্ঠুভাবে তলবি সভা সম্পন্ন হয়েছে। পঞ্চায়েত আইন অনুযায়ী প্রধান ও উপ-প্রধান গঠনের দিনক্ষণ খুব শীঘ্রই ঠিক করা হবে।