বিয়েতে সিঁদুরদান করেই হাসপাতালে ফিরলেন বর

337
প্রতীকী ছবি

রায়গঞ্জ: কনেকে লগ্নভ্রষ্টা হওয়া থেকে বাঁচাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিয়ের পিড়িতে বসে সিঁদুরদান করলেন বর। আচার শেষ হতেই ফের তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার ভোরে করণদিঘির দোমহনা পঞ্চায়েতের ভুলকি গ্রামের ঘটনা। বৃহস্পতিবার রাতে বিয়ে করতে রায়গঞ্জের লক্ষনীয়া থেকে বরযাত্রীদের নিয়ে রওনা দেন বর বাবুরাম কর্মকার। সেইসময় বিলাসপুরের তেঁতুলতলা এলাকার ১২ নম্বর জাতীয় সড়কে লরির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে গাড়ি উলটে বর সহ ১২ জন বরযাত্রী জখম হন। স্থানীয় বাসিন্দাদের সহযোগিতায় জখমদের রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু বর জখম হওয়ায় কনে লগ্নভ্রষ্টা হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা দেখা দেয়। বাধ্য হয়েই বর কোনও রকমে বিয়ের আসরে পৌঁছন। কনে বিপাশা কর্মকারের কপালে সিঁদুর ছুঁইয়েই ফের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়ত তাঁকে। নববধূর বাবা সুনীল কর্মকার বলেন, ‘কঠিন অসুস্থ হয়েও জামাই আমার মেয়েকে লগ্নভ্রষ্টা হওয়া থেকে উদ্ধার করে কর্তব্যবোধের পরিচয় দিয়েছে, এটা সারাজীবন মনে থাকবে।‘ এদিন দুপুরে জখম বাবুরামের ডান পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়।