কোভিড তথ্য জানার নামে সাইবার হানার আশঙ্কা, সতর্ক করল কেন্দ্র

365
প্রতীকী ছবি।

নয়াদিল্লি: দেশে করোনা সংক্রমণ ক্রমশ মারাত্মক আকার নিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে করোনা সম্পর্কে জনমানসে ছড়িয়ে পড়া আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে সাইবার প্রতারণার ছক কষেছেন হ্যাকাররা। রবিবার থেকেই সেই সাইবার হানা শুরু হতে পারে বলে সতর্ক করল কেন্দ্রীয় সরকার।

তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম (সিইআরটি-ইন) জানিয়েছে, প্রথমে কারও মোবাইলে কোভিড সংক্রান্ত কোনও ই-মেল বা বার্তা আসবে। তারপর দেওয়া হবে একটি লিংক। ওই লিংকে ক্লিক করলে মোবাইলে ম্যালওয়্যার জাতীয় ভাইরাস ডাউনলোড হয়ে যাবে। যা সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে। সম্ভাব্য যে ই-মেল আইডি থেকে মেল আসতে পারে তা হল [email protected]। অর্থাৎ সরকারি মেলের আড়ালেই এমন প্রতারণার ছক কষা হয়েছে।

- Advertisement -

সিইআরটি-ইন জানিয়েছে, শুধু ই-মেল নয় টেক্সট মেসেজে মোবাইল ব্যবহারকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হতে পারে। সেখানেও লিংকটি দেওয়া থাকতে পারে। এই চক্রের কাছে প্রায় ২০ লক্ষ ভারতীয় ই-মেল আইডি আছে। যাঁদের বেশিরভাগই দিল্লি, মুম্বই, হায়দরাবাদ, চেন্নাই এবং আহমেদাবাদের বাসিন্দা। এই সব শহরে সংক্রমণ বেশি। সেই সুযোগ কাজে লাগাতে চাইছেন হ্য়াকাররা।

মূলত বিনামূল্যে কোভিড পরীক্ষা সংক্রান্ত ই-মেল আসার সম্ভাবনা বেশি বলে জানা গিয়েছে। কোনও পরিচিতও এই ধরনের মেল আপনাকে পাঠাতে পারে। হয় তিনি না জেনে এটা পাঠাবেন অথবা তাঁর মেল আইডি হ্যাক করে আপনাকে মেল করবে প্রতারকরা। এই ধরনের মেল এলে তা সিইআরটিকে জানানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ জানানোর মেল আইডি হল [email protected]

কোভিড তথ্য জানার নামে সাইবার হানার আশঙ্কা, সতর্ক করল কেন্দ্র| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

সিঙ্গাপুরের সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক সংস্থা সাই ফার্মা জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়র হ্যাকাররা সাতটি দেশে সাইবার হামলা চালাতে পারে। ভারত বাদে হামলার শিকার হতে পারে সিঙ্গাপুর, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন। এইসব দেশের প্রায় ৫০ লক্ষ ই-মেল আইডি এখন হ্যাকারদের কবলে। কিন্তু এত মানুষের ই-মেল আইডি হ্যাকাররা কীভাবে পেল, তা নিয় প্রশ্ন উঠছে। সাই ফার্মা জানিয়ে, গত ছয় মাস ধরে কোভিড ভাইরাসের আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে সক্রিয় ছিল হ্যাকাররা।