প্রার্থী নিয়ে দলের সম্পাদক মণ্ডলীর সভায় সিদ্ধান্ত: হাফিজ আলম

86

মালদা: সব আসনে প্রার্থী দেওয়া হবে কি না, তা দলের সম্পাদক মণ্ডলীর সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। দলের বর্ধীত সভায় যোগ দিতে এসে মালদায় একথা জানালেন ফরওয়ার্ড ব্লকের রাজ্য সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য হাফিজ আলম সৈরানি। শনিবার দুপুরে মালদা শহরের সিঙ্গাতলায় ফরওয়ার্ড ব্লকের জেলা কার্যালয়ে সভায় যোগ দেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, ‘ভোটে লড়াই কখনও বন্ধুত্বপূর্ণ হয় না। ফরওয়ার্ড ব্লকের ভাগে থাকা বেশ কয়েকটি আসনে কংগ্রেস প্রার্থী দিচ্ছে। সিপিএম মুখ বুঝে রয়েছে। এনিয়ে ফ্রন্ট শরিকদের মধ্যে যে ক্ষোভের সঞ্চার হচ্ছে। এনিয়ে কলকাতায় দলের সম্পাদক মণ্ডলীর সভায় আমরা সিদ্ধান্ত নেব যে, আমরা সব আসনে প্রার্থী দেব কি না।’

প্রসঙ্গত, মালদায় বাম কংগ্রেস আসন সমঝোতায় সিপিএমের জন্য ৩টি আসন ছেড়ে জেলার বাকি ৯টি আসন কংগ্রেস নিজেরা নিয়ে নেয়। ফ্রন্ট শরীক ফরওয়ার্ড ব্লক এবং আরএসপির জন্য কোনও আসন ছাড়েনি সিপিএম। এনিয়ে কিছুদিন ধরেই মালদায় ফ্রন্ট ঐক্যে ফাটল দেখা যাচ্ছিল। সংযুক্ত মোর্চা থেকে বেরিয়ে জেলার একাধিক আসনে প্রার্থী দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন ফরওয়ার্ড ব্লকের জেলা সভাপতি শ্রীমন্ত মৈত্র। দলের নেতা-কর্মীদের ক্ষোভের কারণ অনুধাবন করতে রাজ্য নেতা হাফিজ আলম সৈরানি শনিবার মালদায় ছুটে আসেন।

- Advertisement -

সভা শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সৈরানি সাহেব বলেন, ‘সিপিএম পুরোনো বন্ধুদের ভুলে গিয়ে শুধু নিজেদের স্বার্থের কথা ভেবে কংগ্রেস সহ একাধিক নতুন দলের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। এই জেলায় হরিশ্চন্দ্রপুর আসনটি বরাবরই ফরওয়ার্ড ব্লক জিতে এসেছে। ২০১৬ সালে সিপিএম আমাদের উপেক্ষা করে কংগ্রেসকে দিয়ে দেয়। বন্ধুত্বপূর্ণ লড়াইয়ের নাম দিয়ে আমাদের লড়তে বলা হয়। স্বভাবতই আসনটি কংগ্রেস জিতে যায়। একুশের নির্বাচনেও হরিশ্চন্দ্রপুর আসনটি ফের কংগ্রেসকে উপহার দিয়েছে সিপিএম। রাজ্যের একাধিক জায়গায় আমাদের ভাগে থাকা আসনগুলিতে প্রার্থী ঘোষণা করেছে কংগ্রেস। আর সিপিএম চুপচাপ। এমন চলতে পারে না। তাহলে আগামীতে হয়তো আমাদেরও ভাবতে হবে বামফ্রন্টের ভবিষ্যৎ নিয়ে।’