তৃণমূলের বুথ সহ সভাপতির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, টায়ার জ্বালিয়ে প্রতিবাদ দলীয় কর্মীদের

184

বর্ধমান: তৃণমূল কংগ্রেসের বুথ সহ সভাপতির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরে। মৃতের নাম গৌতম ঘোষ (৪৮)। বাড়ি জামালপুরের বৃষ্ণবাটি গ্রামে। বুধবার সকালে পাশের গ্রাম বসন্তবাটির মসজিদতলার কাছে একটি আমগাছের ডালে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

মৃতের ছেলে আকাশ ঘোষ জানান, গতকাল রাতে তাঁর বাবার ফোন আসে। এরপর বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান তিনি। রাতভর খোঁজাখুজি করেও কোনও খোঁজ মেলেনি। এদিন সকালে স্থানীয়রা তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের খবর দেন। পরিবারের দাবি, এলাকার চার বিজেপি কর্মী গৌতমবাবুকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। ছেলের অভিযোগ, এলাকার বিজেপি কর্মীরা তাঁর বাবাকে খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দিয়েছে। এদিকে অভিযুক্ত বিজেপি কর্মীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে স্থানীয় বাসিন্দারা মৃতদেহ উদ্ধারে পুলিশকে বাধা দেন। মেমারি তারকেশ্বর রোডে টায়ার ও খড় জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকরা। পুলিশ প্রশাসনের তরফে ঘটনার তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। বুথ সহ সভাপতির মৃত্যু প্রসঙ্গে জামালপুর বিধানসভার বিজেপি কনভেনার জিতেন ডকাল জানান, তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করতে চাইছে। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানো হচ্ছে। পুলিশ মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করুক। পাশাপাশি ফরেন্সিক টেস্ট করানো হোক। তাহলেই প্রকাশ্যে আসবে এটি আত্মহত্যা নাকি খুন। যদি তৃণমূলের তরফে বিজেপি কর্মীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয় তবে বিজেপিও বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -