ঝুলছে বিদ্যুতের তার, বিপদের আশঙ্কা লায়কাধুরায়

77

রাঙ্গালিবাজনা: ‘রাস্তার ওপর আড়াআড়িভাবে ছয়-সাত ফুট উঁচুতে ঝুলছে বিদ্যুতের তার। পরিস্থিতি এমনই যে ওই রাস্তা দিয়ে কোনও গাড়ি চলাচল করতে পারছে না। বিপদ এড়াতে আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাটের ইসলামাবাদ গ্রামের লায়কাধুরা এলাকার বাসিন্দারা বাঁশের খুঁটি পুঁতে ওই রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন। অথচ, বিষয়টি নিয়ে বারবার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করেও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। তাঁরা জানান, বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থার কর্মীরা সবকিছু পরিদর্শন করে নিয়মের গ্যাঁড়াকলের কথা জানিয়ে ফিরে যান। এদিকে বিপজ্জনকভাবে ঝুলে থাকায় যে কোনও মুহূর্তেই ওই তারের সংস্পর্শে বড় বিপদের আশঙ্কা করছেন তাঁরা।

শনিবার ইসলামাবাদ গ্রামের লায়কাধুরায় গিয়ে দেখা গিয়েছে, বিদ্যুতের তারের ছোঁয়া বাঁচিয়ে অত্যন্ত সাবধানে চলাচল করছেন স্থানীয়রা। তাঁরা জানান, মানুষের পাশাপাশি ওই তারের সংস্পর্শে যে কোনও মুহূর্তেই এক বা একাধিক হাতির মৃত্যু হতে পারে। প্রসঙ্গত, খয়েরবাড়ি বনাঞ্চল লাগোয়া ওই এলাকায় প্রতিদিনই হানা দেয় হাতি। ফলে যে কোনও মুহূর্তেই বিদ্যুতের বলি হতে পারে হাতি। এদিকে, বাঁশ পুঁতে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় কোনও গাড়ি চলাচল করতে পারছে না ওই রাস্তায়। তিনদিন আগে ওই এলাকায় হাতি তাড়াতে গিয়ে রাস্তা বন্ধ দেখে ফিরে যায় বনকর্মীদের গাড়ি।

- Advertisement -

এলাকার বাসিন্দা আমিরুল হক বলেন, ‘লায়কাধুরা এলাকায় তার ঝুলে পড়ার পর বারবার বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থাকে খবর দিয়েও লাভ হয়নি। তাই বাঁশ পুঁতে রাস্তায় গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছি আমরা।’ আরেক বাসিন্দা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ওই তারের সংস্পর্শে যে কোনও মুহূর্তেই হাতির মৃত্যুর আশঙ্কা রয়েছে।’ রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানির মাদারিহাটের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকের ফোনে সাড়া না মেলায় তাঁর বক্তব্য জানা যায়নি।