বধূ নির্যাতনে অভিযুক্ত কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসক

305

রায়গঞ্জ, ২০ ডিসেম্বরঃ বধূ নির্যাতনে অভিযুক্ত রায়গঞ্জ মিক্কিমেঘা কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসক দিলীপ কুমার গুপ্তা। রবিবার সকালে বাগডোগরা থানার পুলিশ রায়গঞ্জের কর্ণজোড়ায় কোভিড হাসপাতালে অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করতে আসে। তাঁকে না পেয়ে পুলিশ ফিরে যায়। পুলিশ সূত্রের খবর, অভিযুক্ত চিকিৎসকের ভাই পেশায় বিহারের বৈশালী জেলা হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট পদে কর্মরত রয়েছেন।

তাঁর ভাইয়ের সঙ্গে বিয়ে হয় দার্জিলিং জেলার বাগডোগরা থানা সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা নিক্কি প্রসাদের। নিক্কি দেবী বিহারের হাজিপুর এলাকার একটি ইংরেজি মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষিকা পদে কর্মরত রয়েছেন। মাস ৬ আগে বাবা মাকে ছেড়ে অভিযুক্ত স্বামী অভিজিৎ গুপ্তাকে পৃথকভাবে থাকার প্রস্তাব দেন নিক্কি প্রসাদ। সেই প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় দিন কয়েক আগে বাগডোগরা থানায় স্বামীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

- Advertisement -

অভিযোগের ভিত্তিতে এদিন বাগডোগরা থানার পুলিশ রায়গঞ্জের কোভিড হাসপাতালে এসে অভিযুক্ত চিকিৎসককে খোঁজাখুঁজি করেন। তবে, তাঁর কোনও হদিস মেলেনি। রায়গঞ্জ আদালতের আইনজীবী দেবব্রত সরকার বলেন, মোট ৪ জনের বিরুদ্ধে বাগডোগরা থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তাদের মধ্যে অভিযুক্ত বাবা-মায়ের শর্তসাপেক্ষে জামিন দিয়েছেন বিচারক।

অভিযুক্ত স্বামী অভিজিৎ গুপ্তা ও রায়গঞ্জ কোভিড হাসপাতালের চিকিৎসক দিলীপ কুমার গুপ্তা উচ্চ আদালতে জামিনের জন্য আবেদন করেছেন। চিকিৎসক দিলীপ গুপ্তা বলেন, আমি বাড়িতে থাকি না। অধিকাংশ সময় কলকাতার ফ্ল্যাটে থাকি। আমার বিরুদ্ধে কেনও মামলা হল, তা বুঝতে পারলাম না।