সরকারি আধিকারিকদের হেনস্তা, রায়গঞ্জে গ্রেপ্তার চিকিৎসক

161

রায়গঞ্জ: সরকারি কর্মচারীকে হেনস্থা এবং আটকে রাখার অভিযোগে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের প্রসূতি বিভাগের চিকিৎসক রাকেশ গোপকে গ্রেপ্তার করল রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। ধৃত চিকিৎসককে আজ রায়গঞ্জ আদালতে পেশ করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নিয়ে রোগী এবং রোগীর আত্মীয়রা বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে গেলেও সেই কার্ডকে স্বীকৃতি দিতে চায়নি বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি জেলা প্রশাসনের নজরে আনার পরই রায়গঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতালে জেলা প্রশাসনের কর্তারা এদিন তদন্ত গিয়েছিলেন। কিন্তু চিকিৎসক রাকেশ গোপ তদন্ত কমিটিকে দেখে তেড়েফুঁড়ে ওঠেন। তদন্তে বাধা দিয়ে সরকারি আধিকারিকদের আটকে রাখার অভিযোগ ওঠে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। রায়গঞ্জ থানার পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে সরকারি কর্মীদের উদ্ধার করে। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ প্রসূতি চিকিৎসক রাকেশ গোপকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানা গেছে। এদিন তাঁকে আদালতে পেশ করা হলে বিচারক চলতি মাসের ২৮ তারিখ পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। যদিও রাকেশ গোপ জানান, তিনি কাউকে হেনস্তা করেননি, বরং তাঁকেই পাল্টা হেনস্তা করা হয়। এনিয়ে রায়গঞ্জ থানার আইসি, সিএমওএইচ ও জেলাশাসককে লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি।