ছেলেদের খোঁচা হার্টলের, পালটা বার্নসের

আহমেদাবাদ : মোতেরায় চূড়ান্ত ব্যর্থতার জের।

ইংল্যান্ড ক্রিকেটে রীতিমতো গৃহযুদ্ধ। জাতীয় পুরুষ দলের দুদিনে টেস্ট হারা নিয়ে খোঁচা দেন স্বয়ং ইংল্যান্ড মহিলা দলের ক্রিকেটার অ্যালেক্স হার্টলে। বৃহস্পতিবার মোতেরা টেস্ট শেষ হওয়ার পরই মজা করে তিনি টুইটারে লেখেন, আজ রাতে ইংল্যান্ড মহিলা দলের (ডুনেডিনে, প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড) ম্যাচ রয়েছে। তার আগে ইংল্যান্ড পুরুষ দল টেস্ট ম্যাচ শেষ করে দিয়েছে। দারুণ ব্যাপার (সঙ্গে হাততালির চারটি ইমোজি)।

- Advertisement -

হার্টলের টুইটটা স্বভাবতই ভালোভাবে নিতে পারেননি রোরি বার্নস। মোতেরা টেস্টে প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি। দলের বিপর‌্যয় বাইরে বসে দেখতে হয়েছে। তারপর হাততালির ইমোজি দেওয়া টুইট। পালটা প্রতিক্রিয়ায় হার্টলের উদ্দেশ্যে ক্ষুব্ধ বার্নস লেখেন, আমরা প্রত্যেকেই মহিলা ক্রিকেটকে সবসময় সমর্থন জানাই। সেদিক থেকে হার্টলের এই ধরনের আচরণ, বক্তব্যে আমি ভীষণভাবে হতাশ।

আর হার্টলে-বার্নস টুইট যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন জেমস অ্যান্ডারসন, বেন স্টোকস এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার বেন ডাকেটও। অ্যান্ডারসন ও স্টোকস দুজনেই বার্নসের টুইটে লাইক দেন। ইংল্যান্ডের হয়ে চারটি টেস্ট খেলা ডাকেট লেখেন, নিম্ন রুচির টুইট। মহিলা দল যদি হারত, তাহলে পুরুষ দলের কেউ এরকম (হাতহালির ইমোজি) করত না। হার্টলে যদিও পরে দাবি করেন, তিনি মোটেই খোঁচা দিতে কিছু করেননি। তার বক্তব্যের ভুল মানে করা হচ্ছে। তিনিও টেস্ট ম্যাচের ভক্ত। এরপর বার্নসও তার টুইট মুছে দেন।

এদিকে, পিচ নিয়ে ক্ষোভ যাচ্ছে না ইংল্যান্ড শিবিরের। আক্রমণাত্মক মেজাজে মুখ খুলেছেন জো রুটও। পিচ-বিতর্কের বল আইসিসির কোর্টে ঠেলেছেন। ইংল্যান্ড অধিনায়ক বলেন, অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং পিচ। ব্যাটিং খুব কঠিন ছিল। আর টেস্টের জন্য এই পিচ সঠিক কি না, তা প্লেয়াররা নয়, আইসিসিই ঠিক করবে। ক্রিকেটার হিসেবে আমরা যেটা পারি তা হল চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে নিজেদের যথাসম্ভব দেওয়া।

ক্রিকেট-দর্শকরা বঞ্চিত। এই যুক্তিতে পিচের দিকে ঘুরিয়ে আঙুলও তুললেন। রুটের দাবি, দুর্দান্ত স্টেডিয়ামে। ৬০ হাজার দর্শক গ্যালারিতে হাজির দুর্দান্ত একটা ম্যাচ দেখার জন্য। ওদের জন্য খারাপ লাগছে। ওরা বিরাট বনাম অ্যান্ডারসন, ব্রডের লড়াই দেখতে এসেছিল। সেখানে আমাকে পাঁচ উইকেট নিতে দেখল! এতেই পরিষ্কার পিচ কতটা স্পিন সহায়ক ছিল। অবশ্য পরবর্তী হোম সিরিজে পিচ ইস্যুতে বিরাটদের বিরুদ্ধে বদলার মানসিকতার কথা খারিজ করে দিলেন রুট। দাবি করেন, স্পোর্টিং ও ভালো পিচই থাকবে বিরাটদের অপেক্ষায়।