ফের উত্তাল হেস্টিংস, শাহি বৈঠকেও কাটল না জট

111

কলকাতা: রাতভর বঙ্গ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা এবং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। তাতে দলের অন্দরে যেমন জট কাটল না তেমনই হেস্টিংসের নির্বাচনি কর্যালয়ে বিক্ষোভ প্রশমিত হল না।  মঙ্গলবার সকাল হতেই ফের হেস্টিংসে প্রার্থী তালিকা নিয়ে বিক্ষুব্ধ দলেরই সমর্থকরা জড়ো হতে শুরু করেন। তাঁদের দাবি উত্তর-দক্ষিণ ২৪ পরগণার বেশ কয়েকজন প্রার্থীকে বদল করতে হবে। দল মনোনীত এই প্রার্থীদের পরিযায়ী প্রার্থী বলছেন বিক্ষুব্ধ বিজেপিরা।

স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা বলছেন, ক্যানিংয়ে (পশ্চিম) প্রার্থী হিসেবে ঘোষিত হয়েছে অর্ণব রায়ের নাম। ২৬ দিন  হয়েছেন তিনি দলে এসেছেন। অভিযোগ এতদিন তৃণমূলের হয়ে নানা অত্যাচারে লিপ্ত থেকেছে এরাই। ভাবমূর্তির প্রশ্নেই  অবিলম্বে এই প্রার্থী বদল চাইছেন তাঁরা। সমস্যা রয়েছে মগরাহাটের পশ্চিম বিজেপি প্রার্থী চন্দন নস্করকে নিয়েও। তাঁকে মানতে না পেরেও শয়ে শয়ে বিক্ষুব্ধ বিজেপি সমর্থক জড়ো হয়েছেন হেস্টিংসে। পাশাপাশি কুলপি বিধানসভার প্রার্থী প্রণব মল্লিককে মানতে নারাজ স্থানীয় মানুষজন।মন্দিরবাজারের প্রার্থী দিলীপ জাটুয়াকে কোনও ভাবেই মানতে চাইছেন না স্থানীয় কর্মীরা। একই রকম ক্ষোভ রয়েছে রায়দিঘির প্রার্থী  শান্তনু বাপুলিকে নিয়ে। দফায় দফায় বিক্ষোভে স্বাভাবিক ভাবেই চিন্তার ভাঁজ রাজ্যের নেতৃত্বের মাথায়। কেন্দ্রের প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে তাঁদেরই।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, শা সরাসরি বৈঠকে উপস্থিত রাজ্যের নেতাদের জিজ্ঞেস করেন, প্রার্থীপদ ঘোষণার পর কেন এই ক্ষোভ, তাহলে কি গঠনতন্ত্র মেনে স্থানীয় নেতৃত্বকে প্রশ্ন করে প্রার্থী বাছাই হয়নি?  তাছাড়া ক্ষোভ বিক্ষোভ থাকতেই পারে সংগঠনের রাশ কেন এত আলগা, জানতে চান শা। কিন্তু তাতেও যে সমস্যা সমাধান হয়নি তার প্রমাণ মিলল এদিন সকালেই। বলাই বাহুল্য এর থেকে বাড়তি ডিভিডেন্ট ঘরে তুলবে শাসক দল। দেখার বিজেপি কত তাড়াতাড়ি এই ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে পারে।