তৃণমূল-বিজেপি কৃষকের বন্ধু নয়, হাটসভায় বোঝাল বামফ্রন্ট 

225

রাঙ্গালিবাজনা: একদিকে বিজেপি পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকার অনৈতিক ও অবৈধভাবে কৃষি আইন প্রণয়ন করেছে। অপরদিকে তৃণমূল ওই আইনের মৌখিক বিরোধিতা করলেও রাজ্যের কৃষকরা সুখে নেই। অর্থাৎ, তৃণমূল ও বিজেপির কেউই কৃষকদের বন্ধু নয়। বৃহস্পতিবার আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট বীরপাড়া ব্লকের  শিশুবাড়িতে এক হাটসভায় আমজনতাকে একথাই বোঝাল বামফ্রন্ট।

এদিন ছিল শিশুবাড়ির সাপ্তাহিক হাটবার। হাটুরে ও হাট ব্যবসায়ীদের কাছে তাদের বার্তা পৌঁছে দিতেই হাট চত্বরে অবস্থিত আরএসপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে এদিন হাটসভার আয়োজন করে বামফ্রন্ট। সভায় পৌরোহিত্য করেন আরএসপির রাঙ্গালিবাজনা শাখা কমিটির সম্পাদক সুজিত দাস। বক্তব্য রাখেন সংযুক্ত কিষান সভার জেলা সম্পাদক জ্ঞানেন দাস, সিপিএমের মাদারিহাট এরিয়া কমিটির সম্পাদক শংকর দাস, আরএসপির জেলা সম্পাদক সুনীল বণিক প্রমুখ।

- Advertisement -

বামফ্রন্ট সূত্রের খবর, কৃষি আইন বাতিলের দাবি ও পশ্চিমবঙ্গে কৃষকদের সমস্যার প্রতিবাদে এদিন হাটসভার আয়োজন করা হয়। কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করার পাশাপাশি এদিন পশ্চিমবঙ্গেও সেচ, ধান বিক্রি সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কৃষকরা বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন বলে অভিযোগ করেন বক্তারা। আরএসপি নেতা সুনীল বণিক বলেন, ‘নিয়ম অনুযায়ী কৃষকদের কাছে ধান কিনছে না রাজ্য সরকার। অনেক সময় টোকেন দিলেও পরিমাণ বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। ফলে লাভের গুড় খাচ্ছে মিল মালিক ও ফড়েরা। পশ্চিমবঙ্গের বহু জমি এখনও সেচের আওতাভূক্ত হয়নি। ফলে উৎপাদন মার খাচ্ছে। ‘রাজ্যের কত শতাংশ জমি সেচের আওতাভূক্ত রয়েছে তা নিয়ে রাজ্য সরকারকে শ্বেতপত্র প্রকাশ করার দাবি তোলেন তিনিও।’