করোনা আক্রান্ত রোগীকে আনতে গিয়ে হেনস্থার শিকার স্বাস্থ্যকর্মী ও অ্যাম্বুলেন্স চালক

463
ফাইল চিত্র

রায়গঞ্জ: করোনা আক্রান্ত রোগীকে আনতে গিয়ে বেধড়ক মার খেতে হল স্বাস্থ্যকর্মী ও অ্যাম্বুলেন্স চালককে। রবিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের রুদ্রখন্ড গ্রামে।

এদিন সকালে ওই যুবকের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসতেই খোঁজখবর শুরু করে স্বাস্থ্য দপ্তর। দিনভর খোঁজ মেলেনি তাঁর। পরে এদিন সন্ধ্যায় আক্রান্ত আক্রান্ত যুবককে উদ্ধার করতে গেলে মারধর খেতে হয় স্বাস্থ্যকর্মী ও অ্যাম্বুলেন্স চালককে।

- Advertisement -

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান বলেন, এদিন মোট ৪ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ পাওয়া গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে তিনজন কোভিড হাসপাতালে ভর্তি। একজন ভিন রাজ্য ফেরত শ্রমিককে আনতে গেলে স্বাস্থ্যকর্মী ও অ্যাম্বুলেন্স চালককে হেনস্তার মুখে পড়তে হয়। তাঁদেরকে মারধর করা হয় বলে আমার কাছে রিপোর্ট এসেছে।

গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সীমা মন্ডল বলেন, ওই যুবক চলতি মাসের ১৫ তারিখে হরিয়ানার গুরগাঁও থেকে রায়গঞ্জে বাড়িতে ফেরেন। এরপর ১৮ তারিখে লালার নমুনা রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দিয়ে আসে। এদিন সকালে মালদহ মেডিকেল কলেজ থেকে ওই যুবকের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ফোন নম্বর ও ঠিকানা ভুল থাকার জন্য দিনভর নাজেহাল হতে হয় স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্মীদের।

তিনি আরও বলেন, এরপর ওই বাড়িতে গিয়ে আধার কার্ডের সঙ্গে ও নামের সঙ্গে মিল পাওয়ায় ওই যুবককে শনাক্ত করা হয়। এরপর তাঁকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় স্বাস্থ্যকর্মী ও অ্যাম্বুলেন্স চালককে মারধর দিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনা খবর রায়গঞ্জ থানায় খবর লেখা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে রয়েছে পুলিশ। সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সীমা মন্ডল বলেন, একটি ঘটনা ঘটেছে। আপাতত ওই যুবক বাড়িতে নেই। পঞ্চায়েতে তরফে বাড়ির চার সদস্যকে হোম কোয়ারান্টিনে রাখার ব্যবস্থা করেছি।