করোনা পরীক্ষার জন্য পুলিশকর্মীদের লালার নমুনা সংগ্রহ

226

কুমারগ্রাম: করোনা পরীক্ষার জন্য কুমারগ্রাম থানার পুলিশকর্মীদের লালার নমুনা সংগ্রহ করলেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা। রবিবার ব্লক স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে ৪৫ জন পুলিশকর্মীর লালার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। থানার অফিসার থেকে শুরু করে সিভিক ভলান্টিয়ারদেরও লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

কুমারগ্রাম ব্লকের স্বাস্থ্য আধিকারিক (বিএমওএইচ) ডাঃ মিজানুল ইসলাম বলেন, ‘ব্লকজুড়ে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে কিনা সেটা জানতে র‍্যানডম করোনা টেস্ট করা হচ্ছে। বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের আধিকারিক এবং কর্মীরা সামনের সারিতে থেকে প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছেন৷ তাঁদের সংক্রামিত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। তাই গ্রাম পঞ্চায়েত অফিস, বিডিও অফিস, চা বাগানগুলি থেকে লালার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এদিন কুমারগ্রাম থানায় পুলিশকর্মীদের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। ঘটনার জেরে রীতিমতো আতঙ্কে ভুগছেন আলিপুরদুয়ার জেলার একাধিক ব্লকের বাসিন্দারা। বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন রয়েছেন আলিপুরদুয়ার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে শুরু করে প্রশাসনের পদস্থ কর্তারাও। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী এমনকি বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের আধিকারিক এবং কর্মীদের একাংশের মধ্যেও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। ধীরে ধীরে বিষয়টি গোষ্ঠী সংক্রমণের দিকেই এগোচ্ছে বলে মত প্রকাশ করেছে ওয়াকিবহাল মহল।

চিকিৎসক নার্সদের মতো পুলিশকর্মীরাও সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে থেকে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় যাবতীয় দায়িত্ব পালন করছেন। কর্তব্য পালনের সময় বিভিন্ন ব্যক্তিদের সংস্পর্শে আসছেন। তাই কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে এদিন কুমারগ্রাম থানার পুলিশকর্মীদের করোনা পরীক্ষার জন্য লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

ব্লক স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা পরীক্ষার জন্য কুমারগ্রাম থানার ৬০ জন কর্মীর নাম পাঠানো হয়েছিল। সেইমতো লালার নমুনা সংগ্রহের প্রয়োজনীয় কিট এবং দুজন ল্যাব টেকনিশিয়ান থানায় পাঠানো হয়। মোট ৪৫ জনের লালার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।