সোমবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, ভাসতে পারে পুজোও

740

নিউজ ব্যুরো, ২৯ সেপ্টেম্বরঃ সোমবারের আগে কোনোমতেই থামবে না ‘বর্ষাসুর’-এর চোখরাঙানি। কলকাতা তো বটেই, দক্ষিণ ও উত্তরবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া দপ্তর। এখানেই শেষ নয়, পুজোর সময়ও বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহবিদদের। সব মিলিয়ে উত্সবের মরশুম এখন ভিজে স্যাঁতসেঁতে। শরতের নীল আকাশে এখন কালো মেঘেদের দাপাদাপি।

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে শনিবার থেকেই লাগাতার বৃষ্টি হচ্ছে, রবিবারও তার ব্যতিক্রম নয়। আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি বা শিলিগুড়ি-কোনো শহরেই মহালয়ায় পুজোর বাজার জমেনি। পুজোর আগে শেষ রবিবারে সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার আশায় ছিলেন ব্যবসায়ীরা। তবে  সকাল থেকে ফের বৃষ্টি শুরু হওয়ায় পুজোর আগে শেষ রবিবার পুজোর বাজার মাটি হওয়ার আশঙ্কা। অনেক জায়গাতেই বেলা যত বাড়ছে, বৃষ্টির দাপটও বাড়ছে। আবহাওয়া দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তামিলনাড়ুর কাছে বঙ্গোপসাগরের উপর দুটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সেইসঙ্গে অসম ও নাগাল্যান্ডের উপরেও একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। ক্রমেই তা শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হচ্ছে। এর সঙ্গে রয়েছে রাজ্যের উপর মৌসুমি বায়ুর অতিসক্রিয়তা। এই সব কারণে রাজ্য জুড়ে বৃষ্টি হচ্ছে।  আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, আপাতত সোমবার পর্যন্ত চলবে এই বৃষ্টি। তারপর নিম্নচাপ শক্তি হারাতে শুরু করলে বৃষ্টি খানিক কমতে পারে। কিন্তু একেবারেই বন্ধ হয়ে যাবে না। আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি ও দুই দিনাজপুরে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

- Advertisement -

সপ্তমী থেকে দশমীর এই চারদিন কী হবে? সে বিষয়ে নিশ্চিত করে এখনই বলতে না পারলেও, আবহাওয়াবিদরা বৃষ্টির আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছে না। কারণ, আগের তিনটি নিম্নচাপ শক্তি হারালেও ফের পুজোর সময় উত্তরপূর্ব বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তের কাছে নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। এই নিম্নচাপের ফলে পুজোর দিনগুলোতেও বৃষ্টি হতে পারে গোটা রাজ্যে। তবে তার স্থায়িত্ব ও তীব্রতা এখন থেকেই বোঝা যাচ্ছে না।