বৃষ্টিতে ভাসছে বাণিজ্যনগরী, বানভাসি কর্ণাটকও

292

মুম্বই: টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত মুম্বই ও তার সংলগ্ন এলাকা। বৃহস্পতিবার সকালেও ভারী বৃষ্টি হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। জলমগ্ন বিভিন্ন এলাকা। ধস নেমেছে পেড্ডার এলাকায়। এদিকে, মহারাষ্ট্র জল ছাড়ায় কর্ণাটকের একটা বড় অংশও বানভাসি। আবহাওয়া দপ্তরের তরফে আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরেই এক নাগাড়ে বৃষ্টি হচ্ছে মুম্বইয়ে। বর্ষায় জল জমার ছবি বাণিজ্যনগরীতে নতুন কিছু নয়। কিন্তু এবার করোনা পরিস্থিতির জেরে আরও জটিল হয়েছে সবকিছু। গতকাল এর সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া শুরু হয়। সন্ধ্যার দিকে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১০৭ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বইতে শুরু করে।

- Advertisement -

গতকাল রাতেই মুম্বইয়ের পেড্ডার এলাকায় ধস নেমে রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে যান চলাচল। সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মানুষ। ফের রাস্তা পুনর্নির্মাণের কাজ চলছে সেখানে।

জানা গিয়েছে, মুম্বই-নাসিক হাইওয়েতেও যানচলাচল বিপর্যস্ত। কল্যাণ ভিওয়ান্ডি বাইপাস, মুম্বরা বাইপাস থেকে থানে পর্যন্ত যানচলাচলের গতি অত্যন্ত শ্লথ। প্রবল বৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়ায় গাছ পড়ে মুম্বইয়ের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সিওনের গান্ধি মার্কেট এলাকা, মুম্বই সেন্ট্রাল, গোল দেভাল সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় ট্র্যাফিক ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে মুম্বইয়ের লোকাল ট্রেন পরিষেবাও।

জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, এদিন আরও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে মুম্বইয়ে। একমাসে যে পরিমাণ বৃষ্টি হওয়ার কথা, চলতি মাসের পাঁচদিনের মধ্যেই তার ৬৪ শতাংশ বৃষ্টি হয়েছে মুম্বইয়ে।

মুম্বই ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য সরকারকে সমস্তরকমের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে মহারাষ্ট্রের জল ছাড়ায় কর্ণাটকের একটা বড় অংশ বানভাসি। এর সঙ্গে চলছে বৃষ্টি। বন্যা এড়াতে সরকারের তরফে উত্তর কানাড়ায় বিশাল বাঁধের লকগেট খুলে জল ছাড়া শুরু হয়েছে। বিভিন্ন নদীর জলস্তর বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে।