বজ্র-বিদ্যুৎ সহ প্রবল বৃষ্টি, কনকনে ঠাণ্ডা দিল্লিতে

211

নয়াদিল্লি: রবিবার সকাল থেকে কালো মেঘে ঢেকেছে আকাশ। তার সঙ্গে প্রবল বজ্র-বিদ্যুতের সঙ্গে বৃষ্টি শুরু হয়েছে৷ যার জেরে কনকনে ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে দিল্লি সহ সংলগ্ন এলাকায়৷ মৌসম ভবন আগেই পূর্বাভাস দিয়েছিল যে রবিবার থেকে বৃষ্টি শুরু হবে৷ দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায় পরপর দু’দিন এ ধরণের খারাপ আবহাওয়া শুরু হয়েছে৷ এর আগে শনিবারও দিল্লি ও তাঁর আশপাশের এলাকা অর্থাৎ নয়ডা, গাজিয়াবাদে বৃষ্টি হয়েছিল৷ মৌসম বিভাগ জানিয়েছিল, উত্তর-পশ্চিম ভারতে আবহাওয়ার পরিস্থিতি খারাপ থাকবে৷ দিল্লি, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশে এ রকম বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি থাকবে৷ শনিবার এ ধরণের বৃষ্টি হয়েছে। রবিবারও পরিস্থিতির অবনতি হবে৷ পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে উত্তর-পশ্চিমের শীতল হাওয়ায় বাধা পেয়েছে। বঙ্গোপসাগর থেকে পূবালী হাওয়ার প্রভাব বাড়ছে। তাই জাঁকিয়ে শীতের প্রভাব কমছে বাংলায়। আগামী সপ্তাহে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়ে হাওয়া অফিস। যার ফলে রাতে ও সকালে ঠাণ্ডা থাকলেও দিনের বেলায় সেরকম ঠাণ্ডা থাকবে না।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাব রয়েছে উত্তর-পশ্চিম ভারতে। এছাড়া রাজস্থানে ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে আগামী কয়েকদিন জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, পাঞ্জাব, দিল্লী সহ উত্তর-পশ্চিম ভারতে বৃষ্টি ও তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার সঙ্গে দক্ষিণ-পশ্চিমের পূবালী হওয়ার সংঘাতে বৃষ্টিপাতের পরিস্থিতি তৈরি হবে। রবিবার থেকে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চন্ডিগড়, দিল্লি, জম্মু-কাশ্মীর হিমাচল প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়াবিদরা। সোমবার প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে পাঞ্জাব ও হরিয়ানায়। সোমবার ও মঙ্গলবার তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, মুজাফফরবাদে। মঙ্গল ও বুধবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে কেরল, তামিলনাডু, পন্ডিচেরিতে এবং লাক্ষাদ্বীপ এলাকায়। আগামী কয়েকদিন ঘন কুয়াশার সর্তকতা জারি করেছে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চন্ডিগড়, দিল্লি, উত্তর প্রদেশে।

- Advertisement -