শীতের আমেজ শুরু হতেই ভাপা পিঠের চাহিদা তুঙ্গে

142

চোপড়া: শীতের আমেজ শুরু হতেই গ্রামীণ এলাকায় ভাপা পিঠের চাহিদা বাড়তে শুরু করেছে। চোপড়ার হাট বাজারে কিংবা গ্রামীণ এলাকায় সকাল সন্ধ্যায় ইতিমধ্যে ভাপা পিঠে বিক্রি হওয়া শুরু হয়েছে। সদর চোপড়া বাজার এলাকায় কয়েকদিন ধরে পসরা সাজাচ্ছেন আদরি, যামিনী হালদার সহ কয়েকজন।

গ্রাম বাংলার বহুল পরিচিত খাবার এই ভাপা পিঠে। মাঠের ধান উঠতেই গৃহস্থের বাড়িতে ভাপা পিঠে খাবারের প্রচলন বহুদিনের। এখনকার দিনে রাস্তাঘাট, হাট বাজার রেস্তরাঁর ভাপা পিঠা মিলছে। মূলত এটি শীতের খাবার। চালের গুঁড়ো জলের ভাপে বা তাপে তৈরি করা হয় এই বিশেষ প্রকার পিঠে। অনেকে এই জাতীয় পিঠে মিষ্টি বা সুস্বাদু করার জন্য গুড় কিংবা নারকেল সহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী চালের গুঁড়োর সঙ্গে মিশ্রণ করে থাকেন।

- Advertisement -

পিঠা বিক্রেতা আদরি হালদার বলেন, ‘ঢেঁকির সাহায্যে চাল গুঁড়ো করা হচ্ছে। ছটপুজো থেকে ভাপা পিঠে তৈরি শুরু করেছি। ছটপুজোর দুই দিনে মোট ২,২০০ টাকার ভাপা পিঠে বিক্রি হয়েছে।‘