নয়াদিল্লি, ৭ জানুয়ারিঃ জেএনইউ হামলার দায় স্বীকার করল হিন্দু রক্ষা দল। মঙ্গলবার টুইটারে হিন্দু রক্ষা দলের নেতা ভূপেন্দ্র তোমর ওরফে পিঙ্কি চৌধুরির একটি ভিডিয়ো দেখা যায়। ভিডিয়োতে তিনি বলেছেন, জেএনইউ-র ক্যাম্পাসে জাতীয়তাবিরোধী ও হিন্দুবিরোধী কার্যকলাপ চলছিল। জেএনইউ কমিউনিস্টদের ঘাঁটি। তারা আমাদের ধর্ম ও দেশের অবমাননা করে। ভবিষ্যতে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে যদি জাতীয়তাবিরোধী কার্যকলাপ হয়, তা হলেও আমরা অ্যাকশন নেব। জেএনইউ-র ঘটনায় জড়িতরা আমাদের কর্মী। আমরা সবসময় দেশের জন্য আত্মত্যাগ করতে রাজি।

প্রসঙ্গত, রবিবার দিল্লির জেএনইউ ক্যাম্পাসে ঢুকে বহিরাগত দুষ্কৃতীরা তাণ্ডব চালায়। বাদ যায়নি গার্লস হস্টেলও। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, গতকাল সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ আচমকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দুষ্কৃতীরা ঢুকে পড়ে। মুখে কাপড় বেঁধে, লাঠি, পাথর, হাতে একের পর এক হস্টেলে হামলা চালায় তারা। ঘটনায় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। তাঁদের হাসপাতালে ভরতি করা হয়। দুষ্কৃতীদের আক্রমণে গুরুতর আহত হন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষ। তাঁর মাথায় ১৬টি সেলাই পড়েছে। তাঁর ঘাড় ও হাতেও চোট লেগেছে। হামলার অভিযোগ ওঠে এবিভিপি-র বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার করে এবিভিপি। তবে তোমরের দাবি কতদূর সত্যি তা খতিয়ে দেখছে দিল্লি পুলিশ।