আলিপুরদুয়ার : প্রাইভেট নার্সিহোমের ধাঁচে এবার আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে চালু হচ্ছে বাজেট হাসপাতাল। জেলা হাসপাতালের নতুন বিল্ডিংয়ে এই বাজেট হাসপাতাল তৈরির জন্য ইতিমধ্যেই জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর একটি ডিপিআর তৈরি করে স্বাস্থ্য ভবনে পাঠিয়েছে। জেলার ডেপুটি সিএমওএইচ–২ সুবর্ণ গোস্বামী জানিয়েছেন, বাজেট হাসপাতালে সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষ কম খরচে নার্সিহোমের মতো পরিসেবা পাবেন। তবে, বাজেট হাসপাতালের পাশাপাশি জেলা হাসপাতালের পরিসেবাও চালু থাকবে। জেলা হাসপাতালের ডাক্তাররাই বাজেট হাসপাতালে রোগীদের দেখবেন। পুজোর পরপই আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের নতুন বিল্ডিংয়ে  বাজেট হাসপাতাল চালু হচ্ছে বলে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে।

কিছুদিন আগে রাজ্যের মুখ্য মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজ্যে প্রাইভেট নার্সিহোমের ধাঁচে বাজেট হাসপাতাল তৈরির কথা ঘোষণা করেন। এই কাজ দ্রুত করার জন্য জেলা শাসকদের চিঠি দেন রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব (স্বাস্থ্য) রাজীব সিনহা। সাতদিনের মধ্যে বাজেট হাসপাতালের জন্য জমি বা হাসপাতালের মধ্যে সুনির্দিষ্ট ব্লক খুঁজে বের করতে জেলাশাসক ও মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের চিঠি দেন রাজীব সিনহা। ওই চিঠি পেয়েই আলিপুরদুয়ারের জেলা প্রশাসনের আধিকারিক ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তারা বসেন। ঠিক হয়, আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালেই তৈরি করা হবে বাজেট হাসপাতাল।

জেলা হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে তিনতলা নতুন বিল্ডিং তৈরি হচ্ছে। ওই বিল্ডিংটিতে বিভিন্ন নতুন ওয়ার্ড চালুর যেমন পরিকল্পনা আছে তেমনি এখানেই একটি তলায় বাজেট হাসপাতাল তৈরি হবে। যেখানে আলাদা পেইড কেবিন থাকবে। বাজেট হাসপাতাল থেকে যা আয় হবে তার ৭৫ শতাংশ টাকা জেলা হাসপাতাল ও বাজেট হাসপাতালের উন্নয়নে খরচ করা হবে। বাকি ২৫ শতাংশ টাকা বাজেট হাসপাতালে পরিসেবা দেওয়া ডাক্তাররা ইনসেনটিভ হিসেবে পাবেন।

ডেপুটি সিএমওএইচ–২ বলেন, অতিরিক্ত স্বাস্থ্য সচিবের চিঠি অনুযায়ী আমরা বাজেট হাসপাতাল তৈরির জন্য আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালকেই চিহ্নিত করেছি।  এর জন্য আমরা একটি বাজেটও তৈরি করে স্বাস্থ্য ভবনে পাঠিয়েছি। এই হাসপাতাল চালু হলে মধ্যবিত্ত ও সম্পন্নরা কম খরচে  হাসপাতালেই নার্সিহোমের মতো পরিসেবা পাবেন। নার্সিহোমে যেমন আলাদা কেবিন, আয়া, নার্স থাকেন বাজেট হাসপাতালেও তাই থাকবেন। আইএমএ-র আলিপুরদুয়ার শাখার সম্পাদক ডাঃ যুধিষ্ঠির দাস বলেন, দিল্লির এইমসেও সম্পন্ন রোগীদের জন্য আলাদা প্রাইভেট ওয়ার্ড আছে। আবার রাজ্যের এসএসকেএম হাসপাতালেও কিছুদিন আগে উডবার্ন ব্লকে মধ্যবিত্ত ও সম্পন্নদের জন্য পেয়িং ওয়ার্ড চালু হয়েছে। এতে সাফল্য পেয়েছে রাজ্য সরকার। সেই সাফল্যকেই হাতিয়ার করে এবার রাজ্য সরকার জেলায় জেলায় বাজেট হাসপাতাল তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ছবি- আলিপুরদুয়ার হাসপাতালের নতুন ভবন তৈরি হচ্ছে। এখানেই বাজেট হাসপাতাল হবে।

ছবি- আয়ুস্মান চক্রবর্তী

তথ্য-ভাস্কর শর্মা