কান কামড়ে ছিঁড়ে ফেলল সতীন, জুড়ল হাসপাতাল

268

রায়গঞ্জ, ১৮ জানুয়ারিঃ দুই সতীনের লড়াইয়ে একজনের গোটা কানটাই শরীর থেকে আলাদা হয়ে গিয়েছিল। কাপড়ের খুঁটে বন্দি হয়ে সেই ছেঁড়া কান হাসপাতলে এল। অবিশ্বাস্য তৎপরতায় ইএনটি সার্জেন্ট তা জুড়েও দিলেন। কোনো বেসরকারি হাসপাতালে নয়, এই কৃতিত্ব দেখিয়েছে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ। সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে এই ঘটনা বিরলতম বলে মেনে নিয়েছেন অনেক নামি ইএনটি সার্জেন্ট। আসরেফা বেগম বাড়ি রায়গঞ্জ থানার শীত গ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের নলপুকুর গ্রামে। শনিবার সকালে আসরেফা বেগমের ডান কান ছিঁড়ে নেয় তার সতীন হালিমা বিবি। এরপর আসরেফা সেই ছেঁড়া কান সঙ্গে নিয়েই পরিবারের সদস্যদের সহায়তায় হাসপাতালে আসেন। দুপুর দেড়টা থেকে এক ঘণ্টার টানা অপারেশন করে কান জুড়লেন রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা। ইএনটি বিশেষজ্ঞ এসপি দাস বলেন, দুদিন গেলে বোঝা যাবে অপারেশন কতটা সফল। তবে রক্ত সংবহন বা ভাসকুলারিটি ঠিক থাকলে কান জুড়ে যেতেও পারে। কান কামড়ে ছিঁড়ে দেওয়ার ঘটনায় সতীন হালিমা বিবির বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানা অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।