প্রোমোটারের খপ্পরে নেতাজির স্মৃতিবিজড়িত এই বাড়ি

105

বালুরঘাট: কেউ পালন করছেন ‘পরাক্রম দিবস’। কেউবা ‘দেশনায়ক দিবস’। আবার কারও কাছে দিনটি ‘দেশপ্রেম দিবস।’ নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী বিভিন্ন নামে পালন হচ্ছে বালুরঘাট শহর জুড়ে। সকাল থেকেই শহরের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলো তাদের দলীয় অফিসে বা শহরে স্থাপিত নেতাজির মূর্তিগুলোতে মালা দিতে ছুটছেন। অথচ নেতাজি বালুরঘাটে এসে যে বাড়িতে রাত্রি যাপন করেছিলেন, সেই স্মৃতি সমৃদ্ধ বাড়িটি প্রোমোটারদের খপ্পরে পড়লেও, সেটিকে রক্ষার দায়িত্ব দায়িত্ব নিচ্ছে না কোনও রাজনৈতিক দলই।

১৯২৮ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামী সরোজরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ের বালুরঘাটের বাড়িতে এসেছিলেন নেতাজি। কিন্তু তাঁর স্মৃতিবিজড়িত এই বাড়িটিকে আজও হেরিটেজ ঘোষণা করা হয়নি বলে আক্ষেপ সরোজবাবুর উত্তরসূরীদের। সরোজবাবুর নাতি দুর্গা চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ‘নেতাজির মতো মহান মানুষের পদধূলি পড়া বাড়িকে হেরিটেজ ঘোষণার দাবি জানিয়ে জেলা শাসক, রাজ্যপাল, রাষ্ট্রপতি সহ সকলের কাছে আবেদন জানানো হয়েছিল।কিন্তু আজও রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে বাড়িটি কার্যত ধ্বংসের দিকেই যাচ্ছে।’ নেতাজির ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী পালন নিয়ে যখন দেশ ব্যস্ত, তখনও অন্ধকারেই রয়ে গিয়েছে নেতাজির রাত্রি যাপন করা বালুরঘাটের চ্যাটার্জি বাড়ি।

- Advertisement -