বোমা বিস্ফোরণে হুড়মুড়িয়ে ভাঙল মাটির বাড়ি, আটক বাবা-ছেলে

146

বর্ধমান: বোমা বিস্ফোরণে ভেঙে পড়ল মাটির বাড়ি। দেওয়ালের নীচে চাপা পড়ে আহত হন পরিবারের তিন সদস্য। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটে পূর্ব বর্ধমানের ভাতার থানার বাণেশ্বরপুর গ্রামে। স্থানীয়রা বিকট আওয়াজ শুনে সেখানে পৌঁছে জামরুল মল্লিক, তাঁর স্ত্রী মারজেদা বিবি ও ছেলে লালচাঁদকে উদ্ধার করেন। চিকিৎসার জন্য তিনজনকেই ভাতার স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জামরুল ও লালচাঁদকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হলেও মারজেদা বিবি এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনায় জামরুল মল্লিক ও ছেলে লালচাঁদকে আটক করেছে ভাতার থানার পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অপরাধমূলক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে অনেকদিন আগেই পুলিশের খাতায় লালচাঁদের নাম উঠেছিল। বেআইনভাবে আগ্নেআস্ত্র রাখার অভিযোগে দেড় বছর আগে লালচাঁদ পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। যদিও পড়ে সে ছাড়া পায়। এছাড়াও কয়েকবছর আগে ভাতার কলেজে অশান্তির ঘটনায়ও লালচাঁদের নাম জড়ায়। তারপর সে কেরলে গিয়ে বাবা জামরুল মল্লিকের সঙ্গে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে যোগ দেয়। কয়েকদিন আগে বাবা ও ছেলে কেরল থেকে বাণেশ্বরপুর গ্রামে ফেরে। এরপর এদিন তাঁদের বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। জানা গিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে পাশের কুলনগর গ্রামের কয়েকজন যুবকের সঙ্গে লালচাঁদ ও তাঁর বন্ধুদের বচসা হয়েছিল। কি নিয়ে বচসা তা এখনও জানা যায়নি। তবে বোমা মজুতের সঙ্গে ওই গোলযোগের কোনও সম্পর্ক রয়েছে কিনা সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জামরুল ও তাঁর ছেলে লালচাঁদকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিংহ রায় জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের খবর পাওয়ার পরই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। ওই বাড়ির দু’জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

- Advertisement -