রায়গঞ্জ ৮ আগস্টঃ এক গৃহবধূর রহস্যমৃত্যুকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল রায়গঞ্জ থানার মনোহরপুর গ্রামে। বুধবার রাতে শোয়ার ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই গৃহবধূ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই গৃহবধূর নাম নিভা বর্মন (২০)। ওই গৃহবধূকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।
পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, এক বছর আগে মনোহরপুরের বাসিন্দা সন্তোষ বর্মনের সঙ্গে ইটাহারের কোটার গ্রামের বাসিন্দা নিভা বর্মনের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় ৫০ হাজার টাকা নগদ ও একটি মোটর বাইক সঙ্গে দুই ভরি সোনা দেওয়া হয়। ছেলে পক্ষের এক লক্ষ টাকা দাবি ছিল। যদিও মেয়ের বাবা বকেয়া টাকা ধীরে ধীরে মিটিয়ে দেওয়ার কথা বলেন। কিন্তু সেই টাকা না দেওয়ায় তারপর থেকেই দাম্পত্য অশান্তি চলছিল। গৃহবধূর বাবা প্রবীর কুমার বর্মনের অভিযোগ, তাঁর মেয়েকে মারধর করে গলা টিপে খুন করে পরে ঝুলিয়ে দেোয়া হয়েছে। মোট জামাই সহ তিন জনের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। যদিও অভিযুক্তরা পলাতক। রায়গঞ্জ থানার পুলিশ জানিয়েছে গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের খোঁজা হচ্ছে।