গৃহবধূ খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল রায়গঞ্জে

212

রায়গঞ্জ ১৪ ফেব্রুয়ারিঃ গৃহবধূ খুনের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল রায়গঞ্জ শহরের বড়ুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের রায়পুর গ্রামে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত ওই গৃহবধূর নাম সুমিতা বর্মন (২৫)। বধূর বাপের বাড়ির সদস্যদের অভিযোগ তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।
জানা গিয়েছে, ‌৯ বছর আগে রায়পুরের বাসিন্দা অভিজিৎ বর্মনের সঙ্গে রায়গঞ্জ থানার সোনাডাঙ্গির বাসিন্দা সুমিতা বর্মনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে টাকার জন্য শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। একাধিকবার সালিশি সভা ও হয়েছে। মেয়ের সুখের জন্য মাঝেমধ্যেই জামাইকে টাকা দিয়ে সাহায্য করতেন সুমিতার বাবা চন্দন বর্মন। চন্দনবাবু জানান, দিন চারেক আগে একটি টোটো কেনার জন্য মেয়েকে টাকার আনার চাপ দিতে থাকে অভিজিৎ। ১০ দিনের মধ্যে টোটো কিনে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেই কথা মানতে নারাজ জামাই। এর জেরেই মেয়ের উপর নির্যাতন শুরু করে অভিজিৎ। এদিন চন্দনবাবু জামাই সহ মেয়ের শ্বশুরবাড়ির সকলের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কারণ স্পষ্ট নয়। ঘটনার তদন্ত করছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ’।