দুই সন্তানকে বিষ খাওয়ানোর পর মায়ের আত্মহত্যার চেষ্টা

216

অমিতকুমার রায়, মানিকগঞ্জ: দীর্ঘদিন ধরে শ্বশুড়বাড়ির লোকজনের তরফে তিরস্কৃত হয়ে আসছে গৃহবধূ। অভিযোগ, দুই সন্তানের জননী হয়েও তিরস্কারের হাত থেকে নিস্তার পায়নি সে। ধৈর্যচ্যুতি ঘটায় ছোট দুই সন্তানদের সঙ্গে বিষপান করেন ওই মহিলা। জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের দক্ষিণ বেরুবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের সাতকুড়া কাঁচাখাওয়া এলাকায় এমন ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। বর্তমানে তিনজনই জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শিশু দুটির অবস্থার উন্নতি হলেও গৃহবধূর অবস্থা আশঙ্কাজনক। লিখিত অভিযোগ জমা না পড়লেও বিষয়টির উপর নজর রেখেছে মানিকগঞ্জ আউট পোস্টের পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গৃহবধূর নাম অনিমা হাজরা। ওই গৃহবধূর স্বামী অর্জুন হাজরা জানান, তিনি ট্রাক্টর চালান। এদিনও কাজের সূত্রে বাইরে গিয়েছিলেন। সেসময় স্ত্রী অনিমা হাজরা তাঁকে ফোন করে জানান তাঁর মা, দাদা ও বৌদি তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেছে। তাই তিনি আত্মহননের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এরজন্য বাজার থেকে বিষও সংগ্রহ করে আনেন তিনি। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে বাড়ি ছুটে যান। কিন্তু বাড়ি পৌঁছে দেখেন ইতিমধ্যেই স্ত্রী অনিমা নিজে ও সঙ্গে দুই সন্তানকে বিষ খাইয়ে দিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের উদ্ধার করে হলদিবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

- Advertisement -

কর্তব্যরত চিকিৎসক অসীমবাবু জানান, পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় তাঁদের জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। তবে প্রাথমিক চিকিৎসার সময় পেট থেকে অনেকটা বিষ বের করা হয়েছে। অর্জুন হাজরা জানান, চিকিৎসার জন্য ব্যস্ত থাকার কারণে এখনও পুলিশে অভিযোগ করা সম্ভব হয়নি। মানিকগঞ্জ আউট পোস্টের ওসি মেহবুব হুসেন চৌধুরী বলেন, এখনও কোনও অভিযোগ পাইনি। তবে বিষয়টির উপর পুলিশ নজর রাখছে।