পণের টাকা না মেলায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুন!

124

করণদিঘি: বিয়ের তিন মাসের মাথায় গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামী ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটে করণদিঘি থানার রসাখোয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের মহেশপুর গ্রামে। পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই গৃহবধূর নাম সোমা রায় (২০)। অভিযুক্ত স্বামী মনোজ রায়কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বিধাননগরের সদরগছের বাসিন্দা সোমা রায়ের সঙ্গে করণদিঘি থানার মহেশপুরের বাসিন্দা মনোজ রায়ের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় পণ হিসেবে ২ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা থাকলেও দেড় লক্ষ টাকা দেয় মেয়ের বাবা শৈলেন রায়। বাকি ৫০ হাজার টাকা ছয় মাসের মধ্যে দেওয়ার কথা ছিল। সেই টাকা নিয়েই যাবতীয় গণ্ডগোলের সূত্রপাত। বিয়ের পর থেকে ওই গৃহবধূর ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করা হত বলে অভিযোগ। অভিযোগ, এদিন গৃহবধূকে বেধড়ক মারধরের পাশাপাশি শ্বাসরোধ করে খুন করে তাঁর স্বামী মনোজ রায় ও শাশুড়ি শ্রীমতি রায়। স্থানীয় বাসিন্দারা গৃহবধূর বাবার বাড়িতে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। গৃহবধূর পরিবারের তরফে করণদিঘি থানায় স্বামী ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে শাশুড়ি পলাতক। করণদিঘি থানার আইসি সৌম্যজিৎ রায় জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট নয়। অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

- Advertisement -