নয়াদিল্লি, ৩ অক্টোবরঃ  মাটির আর্দ্রতা পরিমাপের জন্য মানচিত্র তৈরি করছে আইআইটি গান্ধিনগর ও আবহাওয়া দপ্তর। ভারতে প্রথম এই ধরনের মানচিত্র তৈরি হচ্ছে। মানচিত্রটির মাধ্যমে বৃষ্টিপাতের তারতম্যের নিরিখে মাটির আর্দ্রতা কেমন হতে পারে সেসম্পর্কে ৭ থেকে ৩০ দিনের পূর্বাভাস পাওয়া যাবে। গবেষক দলের প্রধান তথা আইআইটি গান্ধিনগরের অধ্যাপক বিমল মিশ্র জানিয়েছেন, খরিফ ও রবিশস্যের জন্য আর্দ্রতার নিরিখে আলাদা ধরনের মাটির প্রয়োজন। আর মাটির আর্দ্রতা নির্ভর করে বৃষ্টিপাতের উপর। আর্দ্রতার পরিমাণ দেখে ফসল উৎপাদন ও জলস্তর সম্পর্কে ধারণা পাওয়া সম্ভব।
নতুন মানচিত্র অনুযায়ী, গুজরাট, বিহার, ঝাড়খণ্ড, তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশের দক্ষিণ অংশের মাটিতে আর্দ্রতার পরিমাণ স্বাভাবিকের তুলনায় কম। ওই অঞ্চলে রবি ফসলের উৎপাদন প্রভাবিত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশ, বুন্দেলখণ্ড ও ছত্তিশগড়ে মাটির আর্দ্রতা স্বাভাবিক রয়েছে।