বারবিশা, ১৯ মেঃ আন্তঃরাজ্য অবৈধ মদ পাচার রুখল পুলিশ। রবিবার অসম-বাংলা সীমান্তের নাজিরান দেউতিখাতা সংকোশ সেতু এলাকায় নাকা চেকিংয়ের সময় একটি পিকআপ ভ্যান থেকে উদ্ধার হয় ৩৮ কার্টন ভেজাল মদ। যার আনুমানিক বাজারমূল্য লক্ষাধিক টাকা বলে জানা গিয়েছে। ঘটনায় পিকআপ ভ্যান চালককে গ্রেফতার করেছে বক্সিরহাট থানার পুলিশ।

পুলিশের চোখে ধুলো দিতে মদের কার্টনগুলিকে লেবু এবং কাঁচা লংকার বস্তা দিয়ে ঢেকে ভিনরাজ্যে পাচারের চেষ্টা করছিল দুষ্কৃতীরা। সীমান্ত এলাকায় তল্লাশি চালাতেই বেরিয়ে আসে একের পর এক মদের কার্টন। পুলিশের অনুমান, আন্তঃরাজ্য পাচারকারী চক্রের পাণ্ডারা বেশি মুনাফার লোভে দেশি মদ তৈরির পর সেগুলি নামি ব্র্যান্ডের মদের বোতলে ভেজাল মদ ভরে ব্যবসা করছে। রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ওই ভেজাল মদ ভিনরাজ্যে পাচার করছে পাচারকারীরা।

বক্সিরহাট থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, মদের কার্টনগুলি অসমের বঙ্গাইগাঁও থেকে বোঝাই করে শিলিগুড়ি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। যদিও পুলিশের সন্দেহ, গাড়ির নম্বর প্লেটও ডুপ্লিকেট করা হয়েছে। আর শিলিগুড়ি ঠিক নয়, অসম থেকে পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বিহারে পাচার করা হচ্ছিল ওই ভেজাল মদ। এই পাচারচক্রের সঙ্গে আরও কে বা কারা জড়িত রয়েছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ধৃতকে সোমবার আদালতে পেশ করা হবে।