গলায় গামছার ফাঁস লাগিয়ে স্ত্রী’কে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বামী

70

বর্ধমান: গলায় গামছার ফাঁস লাগিয়ে শ্বশুর বাড়িতে ফিরে আসা স্ত্রী’কে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার হল স্বামী। ধৃতের নাম অমর সানা। মাধবডিহি থানার পুলিশ বুধবার ভোরে গোতান বাসস্ট্যান্ড থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। সুনির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে এদিনই ধৃতকে বর্ধমান আদালতে পেশ করে পুলিশ। তদন্তের স্বার্থে ৫ দিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে বধূর বাবার বাড়ির সদস্যরা ।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত গৃহবধূর নাম মোসুমী সানা। হুগলির খানাকুল থানার রাউত খানা এলাকা বাসিন্দা তিনি। বছর ছয় আগে পূর্ব বর্ধমানের মাধবডিহি থানার গোতান গ্রামের বাসিন্দা অমর সানার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। দু’জনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। প্রথমদিকে সব ঠিকঠাক থাকলেও বছর খানেক আগে থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি শুরু হয়। মৌসুমীকে মাঝেমধ্যেই মারধর করা হত বলে অভিযোগ। অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে কিছুদিন আগে বাপের বাড়িতে চলে যান মৌসুমী। অত্যাচার বন্ধ ও বিবাদ মিটিয়ে নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে মঙ্গলবার স্ত্রী মৌসুমীকে ফিরিয়ে নিয়ে যায় অমর। ওইদিন মৌসুমীর সঙ্গে তাঁর বাবা ও দুই আত্মীয় অমরের বাড়িতে আসেন। রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর মৌসুমীর বাবা ও আত্মীয়রা একটি ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। ঘরের বাইরে খাটিয়ায় স্বামী-স্ত্রী শুয়েছিল।

- Advertisement -

অভিযোগ, গভীর রাতে গোঙানির শব্দ শুনে ঘর থেকে বেরিয়ে এসে মৌসুমীর বাবা ও আত্মীয়রা দেখতে পান, একটি গামছা দিয়ে মৌসুমীর গলায় ফাঁস লাগিয়ে টেনে ধরে রয়েছে অমর। মৌসুমীর বাবা ও আত্মীয়দের ঘর থেকে বের হতে দেখে সে গামছা নিয়ে দৌঁড়ে পালায়। দ্রুত মৌসুমিকে মাধবডিহি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। রাতেই ঘটনার কথা জানিয়ে বধূ মৌসুমীর বাবা মাধবডিহি থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ অমরকে গ্রেপ্তার করে।