মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রী’কে নৃশংসভাবে খুনের অভিযোগ

320
প্রতীকী

বর্ধমান: মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রী’কে নৃশংসভাবে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। বুধবার গভীর রাতে পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রাম থানার বননব গ্রামের পূর্ব্বতটি গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। মৃতার নাম ভৈরবী আকুঁড়ে (৪১)। ঘটনার পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছেন মৃতার স্বামী বুধন আকুঁড়ে। মৃতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত স্বামীর খোঁজ চলছে। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন বধূর প্রতিবেশী ও পরিজনরা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আউশগ্রামের বননবগ্রাম পূর্ব্বতটি গ্রামে ভৈরবীদেবীর শ্বশুরবাড়ি। তাঁর দুই ছেলে কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন। প্রতিবেশী মনোজ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ভৈরবীদেবীর স্বামী বুধন আকুঁড়ে প্রতিদিন আকন্ঠ মদ খেয়ে রাতে বাড়ি ফিরে অশান্তি করতেন। স্বামীর মদ খাওয়া মেনে নিতে পারেননি ভৈরবীদেবী। তিনি তাঁর প্রতিবাদ করতেন।’

- Advertisement -

বুধবার গভীর রাতে বুধন মদ খেয়ে বাড়ি ফিরলে তখনও ভৈরবীদেবী তার প্রতিবাদ করেন। এতে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি চরমে ওঠে। অভিযোগ, সে সময় বুধন স্ত্রী’কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর পাশাপাশি মুগুর দিয়ে মাথা ও মুখের অংশ থেঁতলে দেন। রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থেকে আর্তনাদ করতে থাকেন ভৈরবীদেবী। এরপরই পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে বুধন বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। প্রতিবেশীরা ভৈরবীদেবীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় বননব গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ভোররাতে সেখানেই ভৈরবীদেবীর মৃত্যু হয়।