জুয়া খেলার প্রতিবাদ করায় অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, কাঠগড়ায় স্বামী

101

রায়গঞ্জ: জুয়া খেলার প্রতিবাদ করায় ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে এলোপাতাড়ি লাথি মেরে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে রায়গঞ্জ থানার বীরঘই গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘুঘুডাঙ্গা এলাকার ঘটনা। গুরুতর জখম গৃহবধূকে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ মহিলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন জখম গৃহবধূর বাবা মুসলিম আলি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম ওই গৃহবধূর নাম মুস্তারী খাতুন(১৯)। ৮ মাস আগে রায়গঞ্জ থানার ঘুঘুডাঙ্গার বাসিন্দা গোলাম আলির সঙ্গে ইটাহার থানার উত্তর মোহনপুর এলাকার ভাগনৌল গ্রামের বাসিন্দা মুস্তারী খাতুনের বিয়ে হয়। অভিযুক্ত স্বামী গোলাম আলি ভিন রাজ্য পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করত। বিয়ের পর স্থানীয় একটি গ্রামের বাজারে সবজির ব্যবসা করেন। সম্প্রতি ব্যবসার জন্য ওই গৃহবধূর বাবা ৫০ হাজার টাকা দেন। সেই টাকাও জুয়া ও তাস খেলে হেরে গিয়েছে। দিল্লি থেকে অভিযুক্তের বাবা-মা যে টাকা পাঠায় সেই টাকাও জুয়ায় শেষ করে দিয়েছে। সেকারণেই ওই বধূ প্রতিবাদ করলে বেধড়ক মারধর করে তাঁকে। গতকাল গভীর রাতে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় এদিন সকালে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে রেফার করে ওই গৃহবধূকে। তাঁর পেটে থাকা ছয়মাসের শিশুটির মৃত্যু হয়েছে।

- Advertisement -

জখম গৃহবধূ জানান, সব টাকা জুয়া লটারির টিকিট তাস খেলে উড়িয়ে দিয়েছে আমার স্বামী। রায়গঞ্জ থানায় অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে রায়গঞ্জ মহিলা থানার পুলিশ।