বর্ধমান ১০ ডিসেম্বরঃ দাম্পত্য কলহের জেরে স্ত্রীকে খুল করে আত্মঘাতী হলেন স্বামী। জখম হয়েও বরাত জোরে প্রাণে বেঁচে গেছে দম্পতির শিশু কন্যা। মৃত  দম্পতির নাম অচিন্ত্য সাঁতরা (২৭) ও জবা সাঁতরা(২১)। এই ঘটনা জানাজানি হতেই মঙ্গলবার সকাল থেকে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে পূর্ব বর্ধমানের মন্তেশ্বরের উত্তরপাড়ায়। খবর পেয়ে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য  কালনা মহকুমা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। দম্পতির ৯ সাসের শিশুটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
মৃত অচিন্ত্য সাঁতরার মা উর্মিলা সাঁতরা জানান, এদিন সকালে তিনি বাজার থেকে বাড়ি ফিরে ছেলে ও বৌমাকে ডাকাডাকি করেও সাড়া না পেয়ে তাদের ঘরে ঢোকেন। তখন দেখতে পান, ঘরের ভিতরে থাকা খাটের উপর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে তাঁর বৌমা জবা ও নাতনি অনিন্দিতা। ওই ঘরে ছেলে  অচিন্ত্যকে দেখতে না পেয়ে তিনি তাঁর খোঁজ শুরু করেন। তখনই তাঁর নজরে আসে বাড়ির সামনে গোয়ালঘরের গলায় দড়ির ফাঁস লাগান অবস্থায় ঝুলছে তাঁর ছেলের দেহ।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রায় স্বামী-স্ত্রীর অশান্তি হত। এই অশান্তি শেষ করতেই স্ত্রী ও সন্তানকে খুন করে নিজে আত্মঘাতী হওয়ার ছক কষেছিল বলে তাদের অনুমান। এদিকে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ জানিয়েছে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।