স্ত্রীর পেটে ও মুখে ছুরি চালিয়ে চম্পট দিল স্বামী

430

রায়গঞ্জ: শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসে আচমকা স্ত্রীর পেটে ও মুখে ছুরি চালিয়ে চম্পট দিল স্বামী। উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ থানার সাহেব ঘাটা এলাকার ঘটনা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনায় হতচকিত হয়ে যান বাড়ির লোকজন। তড়িঘড়ি রক্তাক্ত অবস্থায় ওই মহিলাকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর চব্বিশের ওই বধূর ছয় বছর আগে কালিয়াগঞ্জ থানার রঘুনাথপুর গ্রামে আনসার আলীর সঙ্গে বিয়ে হয়। পেশায় ব্যবসায়ী বিয়ের পর থেকেই টাকা নিয়ে পারিবারিক অশান্তি চলছিল। শেষ পর্যন্ত স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে সপ্তাহ খানেক আগে কালিয়াগঞ্জ থানার সাহেবঘাটা সংলগ্ন কালুডাঙ্গা এলাকায় বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেয় ওই গৃহবধূ।

- Advertisement -

এদিন দুপুরে শ্বশুর বাড়িতে হানা দেয় আনসার আলী। স্বামীকে দেখে অবাক হয়ে যান স্ত্রী। দ্রুত রান্না ঘর থেকে বের হতেই। তাঁর স্বামী মুখে ও পেটে ছুরি মেরে চম্পট দেয়। মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম ওই গৃহবধূর নাম আনশুরা বেগম (২৪)। জখমের বাবা আজগর আলীর অভিযোগ দিন দুপুরে বাড়িতে ঢুকে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার নাম করে নিজের প্যান্টের পকেট থেকে ধারালো ছুরি বের করে সরাসরি গলায় মারতে গেলে মুখে লেগে যায়।

এই ঘটনায় কালিয়াগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে জখম গৃহবধূর বাবা আজগর আলী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে কি কারণে ওই মহিলাকে জখম করা হল তার কারণ জানতে ওই গৃহবধূকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। এমনটাই জানিয়েছেন কালিয়াগঞ্জ থানার আধিকারক।