রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে মেয়েদের সম্মান থাকবে না: সুজাতা খাঁ

278

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়,বর্ধমান: দলত্যাগ করে বিজেপিতে যাওয়া নেতাদের মোকাবিলায় এখন তৃণমূলের তুরুপের তাস সুজাতা খাঁ মণ্ডল। একের পর এক তৃণমূলের সভায় যোগদিয়ে সুজাতা খাঁ আক্রমণ শানাচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী ও তাঁর স্বামী অর্থাৎ বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি তথা সাংসদ সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে।

বুধবার পূর্ব বর্ধমানের মেমারির সাতগাছিয়ায় আয়োজিত সভাতেও তার ব্যতিক্রম ঘটল না। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায় কয়েকদিন আগে সাতগাছিয়ার যে মাঠে জনসভায় যোগ দিয়েছিলেন এদিন সেই মাঠেই জনসভার আয়োজন করে তৃণমূল। সেই সভায় আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া সুজাতা খাঁ। সভায় বক্তব্য রাখতে উঠে সুজাতা প্রথম থেকেই আক্রমণের মুডে ছিলেন। এদিন নিজের স্বামী সৌমিত্র খাঁ থেকে শুরু করে শুভেন্দু অধিকারী ও অন্য বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি তাঁর ক্ষোভ উগরে দেন।

- Advertisement -

রাজ্যের মন্ত্রী তথা পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি স্বপন দেবনাথকে পাশে দাঁড় করিয়ে সুজাতা এদিন বলেন, শুভেন্দু ও তাঁর পরিবার ১০ বছর ধরে ক্ষমতা ভোগ করেছে। অনেক পদ আঁকড়ে বসেছিলেন শুভেন্দু। তারপরেও মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হবে না বুঝে উনি এখন বিজেপিতে ঝাঁপ মেরেছেন। এখন আবার উনি বলছেন, ‘হরেকৃষ্ণ হরে হরে; বিজেপি ঘরে ঘরে।’ সভামঞ্চ থেকে পাল্টা শ্লোগান তুলে শুভেন্দুকে কটাক্ষ করে সুজাতা খাঁ বলেন, ‘তোমার ঘরেই তো তৃণমূল আছে ভরে ভরে’। একই সঙ্গে সুজাতা দাবি করেন, ‘বিজেপির খানে কা দাঁত আর দিখানে কা দাঁত আলাদা।’ তা না হলে কী করে একজন সাংসদ তাঁর স্ত্রীকে ডিভোর্স দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন। এই প্রসঙ্গ সামনে এনে সুজাতা খাঁ বলেন, বিজেপিতে নারীদের কোনও সন্মান নেই বলেই তিনি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। সারদা, নারদার মত কেলেঙ্কারির সঙ্গে যুক্তরা এখন বিজেপিতে গিয়ে শুদ্ধ হয়ে যাচ্ছেন। বিজেপি এই রাজ্যে যদি ক্ষমতায় অসে তাহলে বাংলার মেয়েদের সম্মান বলে আর কিছু থাকবে না। এই কথা বলে সুজাতা জনসভায় উপস্থিত সকলেই ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীদের ভোট দিয়ে জয়ী করার আহ্বান জানান।