তৃণমূলকে না সরালে পশ্চিমবঙ্গ বাংলাদেশে পরিণত হবে: সায়ন্তন বসু

80

রায়গঞ্জ: তৃণমূল কংগ্রেসকে এবারের নির্বাচনে বাংলা থেকে না সরালে পশ্চিমবঙ্গ বাংলাদেশ হয়ে যাবে। মঙ্গলবার রায়গঞ্জের শিলিগুড়ি মোড়ে বিজেপি প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যাণী ও বিজেপি জেলা সভাপতি বিশ্বজিত লাহিড়ীকে সঙ্গে নিয়ে চায়ে পে চর্চায় যোগ দিয়ে এমনটাই জানান বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। চায়ের আড্ডায় যোগ দিয়ে তৃণমূল, কংগ্রেস ও সিপিআইএমকে একযোগে আক্রমণ করেন সায়ন্তনবাবু। তিনি জানান, ভোট নিয়ে তৃণমূল বাংলাজুড়ে সন্ত্রাস চালাচ্ছে। তবে সাধারণ মানুষ অনেক জায়গায় রুখে দিচ্ছেন।

এদিন সায়ন্তন বসু উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের জন্য বিজেপিকে ভোট দেওয়ারও আহ্বান জানানোর পাশাপাশি উত্তরবঙ্গে এইমস প্রতিষ্ঠার কথাও তুলে ধরেন। তাঁর বক্তব্য, বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে বাংলাদেশি অনুপ্রেবেশকারী গুন্ডারা গুন্ডামি করছে। তাঁদের এক বিজেপি কার্যকর্তাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুঁশিয়ারিও দেওয়া হচ্ছে। তিনি জানান, এক কার্যকর্তার মাকে মেরে ফেলা হয়েছে। মমতাকে কটাক্ষ করে তাঁর বক্তব্য, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পিসির থেকে ফুফি হওয়ার বেশি চেষ্টা করছে। বাংলাদেশি রোহিঙ্গাদের ভোটার লিস্টে নাম তুলেছেন। এরাই ভোটে সন্ত্রাস চালিয়ে যাচ্ছে।’

- Advertisement -

ভোট প্রচারে বাংলাদেশি তারকা নিয়ে আসা হয়েছিল উত্তর দিনাজপুর জেলায়। কিন্ত কোনও লাভ হবে না। এবার তাঁদের বিদায় দেবেন সাধারণ মানুষ। যদিও সায়ন্তন বসুকে গুরুত্ব দিতে চাননি তৃণমূল নেতৃত্ব। রায়গঞ্জ বিধানসভার কো-অর্ডিনেটর অরিন্দম সরকার জানান, বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারবে না বলে উলটোপালটা কথা বলতে শুরু করেছেন নেতারা। সাধারণ মানুষকে ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চলছে। তবে এর যোগ্য জবাব পাবে ভোটে।

এদিন রায়গঞ্জে জেলা কার্যালয়ে বিজেপির প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হয়। কর্মসূচিতে সায়ন্তন বসু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন রায়গঞ্জ লোকসভার সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী সহ জেলা ও মণ্ডলস্তরের কার্যকর্তারা।