বিরাটের ত্রিশতরানের অপেক্ষায় কপিল দেব

কলকাতা : শেষ শতরান ২০১৯ সালে। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্টে। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে সেই শতরানের পর থেকেই ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাটে রান খরা চলছে।

মাঝে প্রায় দুই বছর সময় পেরিয়ে গিয়েছে। করোনা অতিমারির সঙ্গে দুনিয়ার লড়াই সমানে চলছে এখনও। কঠিন সময়ে টিম ইন্ডিয়া অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড সফরও করে ফেলেছে। দল হিসেবে সাফল্যও এসেছে। কিন্তু ক্যাপ্টেন কোহলির ব্যাটে রানের দেখা পাওয়া যায়নি। কেন তাঁর এমন অবস্থা? কবে কোহলি রান পাবেন? ক্রিকেটমহলে ভারত অধিনায়ককে নিয়ে প্রশ্ন ও জল্পনার শেষ নেই।

- Advertisement -

মরু দেশে কোয়ারান্টিনে থাকা রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের অধিনায়ক কোহলির জন্য আজ ব্যাট ধরেছেন দেশের প্রথম বিশ্বজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। এক অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে তিনি দুটো বিষয় দুনিয়াকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। এক, জাতীয় দলের নেতৃত্ব কোহলির জন্য চাপ নয়। চাপ হলে নেতৃত্বের দায়িত্ব সামলে অতীতে পারফর্ম করতে পারত না বিরাট। দুই, ভারত অধিনায়কের রানে ফেরা সময়ের অপেক্ষা। আর কোহলি যখনই রানে ফিরবেন, তখনই তাঁর ব্যাট থেকে ত্রিশতরান আসবে।

এমন আশার কথা শুনিয়ে কপিল আজ বলেন, অতীতে দীর্ঘসময় ধরে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব সামলেই রান করেছে বিরাট। তখন কারোর মনে হয়নি জাতীয় দলের নেতৃত্ব ওকে চাপে ফেলে দিচ্ছে। তাই এখন এসব কথা বলার মানেই হয় না। আমি নিশ্চিত, দ্রুত রানে ফিরবে কোহলি। আর যখন নিজের ছন্দ ফিরে পাবে, তখনই ত্রিশতরান করবে ও। সেই অপেক্ষায় রয়েছি আমিও।

১৯৮৩ সালের বিশ্বজয়ী ভারত অধিনায়কের কথায়, ২৮ থেকে ৩২ একজন ক্রিকেটারের জন্য সঠিকভাবে বিকশিত হওয়ার সময়। মনে রাখবেন, ব্যাটে রান না পেলেও কোহলির অভিজ্ঞতা কিন্তু আরও বেড়েছে। ওর যা ফিটনেস, আরও অনেকদিন ভারতের হয়ে খেলবে ও। তাই আচমকা কোহলির রান না পাওয়া নিয়ে বিরাট হইচইয়ে মানে হয় না।