পানবাড়ি বাজারে রাস্তা দখল করে ইটের স্তূপ, নির্বিকার প্রশাসন

347

ময়নাগুড়ি : ময়নাগুড়ি-রামশাই পূর্ত দপ্তরের রাজ্য সড়কে পানবাড়ি বাজারে রাস্তা দখল করে সারি সারি করে ইট রাখা হয়েছে। এতে রাস্তা সংকুচিত হয়ে গিয়েছে। এর জেরে পথচলতি মানুষ সহ বাসিন্দারা যাতায়াতে সমস্যায় পড়েছেন। রাস্তায় ইটের স্তূপ রাখায় দুর্ঘটনার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসনের তরফে বিষয়টি খতিয়ে দেখে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

ময়নাগুড়ি-রামশাইগামী সড়কের মাঝে পানবাড়ি বাজার এলাকায় ছোট-বড় মিলিয়ে কয়েকশো দোকান রয়েছে। বিশেষ করে রাস্তার দুপ্রান্তে বেশ কিছু দোকান গজিয়ে উঠেছে। অধিকাংশ দোকানদার রাস্তার ওপর পসরা সাজিয়ে রাখছেন। এ ছাড়াও রাস্তার দুপ্রান্তে সবজি সহ নানা সামগ্রী নিয়ে বিক্রেতারাও বসছেন। এতে রাস্তা সংকুচিত হয়ে য়াওয়ায় প্রায়দিনই যানজট তৈরি হচ্ছে। প্রায়শই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। বৃহস্পতিবার এবং রবিবার সাপ্তাহিক হাট হওয়ায় সপ্তাহের অন্যদিনের তুলনায় ওই দুটি দিন যানজট আরও বড় আকার নেয়। হাটের দিনে গাড়ি নিয়ে যাতায়াতে চরম সমস্যা হচ্ছে। হেঁটে চলাচল করতে পথচলতি মানুষকে বিপাকে পড়তে হয়। রাস্তা পেরিয়ে এলাকার একমাত্র উচ্চবিদ্যালয় ভবানী হাইস্কুলে আসা-যাওয়া করতে পড়ুয়াদেরও দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

- Advertisement -

কলেজ পড়ুয়া বিক্রমজিত্ চৌধুরী বলেন, রাস্তার ওপর যেভাবে ইটের স্তূপ রাখা হয়েছে তাতে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এই বিষয়ে আরও সতর্ক হওয়া উচিত। স্থানীয় বাসিন্দা কৈলাস রায় বলেন, রাস্তার পাশের জায়গা কার্যত ব্যবসায়ীদের দখলে চলে গিয়েছে। এতে রাস্তা ছোটো হয়ে গিয়েছে। ফলে বড় গাড়ি ঘোরাতে গিয়ে অনেকে অসুবিধায় পড়ছেন। বিশেষ করে ইট, পাথর সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র রাস্তাজুড়ে রেখে দেওয়ায় সমস্যা তৈরি হয়েছে। পানবাড়ি হাট ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক আনন্দ মণ্ডল বলেন, বাজারে দোকানের জন্য জায়গার অভাব রয়েছে। জায়গা ফাঁকা পড়ে থাকলে সেই জায়গাতে অস্থায়ী দোকান গড়ে উঠতে পারে এই আশঙ্কায় কিছু দোকানদার রাস্তা ঘেঁষে সামগ্রী রেখেছেন। তাছাড়া কিছু ক্রেতা রাস্তার মাঝে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করেন। তাই বাধ্য হয়ে কিছু দোকানদার রাস্তার সামনে পসরা সাজিয়ে রাখছেন। তবে এই ব্যবসায়ীদের আমরা আগেও সচেতন করেছি। বাজারে যাতে য়ানজট সমস্যা না হয় এবং রাস্তা দখল করে জিনিস না রাখা হয় আগামীতে ফের এই বিষয়ে আলোচনায় বসা হবে। ময়নাগুড়ি থানার ট্রাফিক বিভাগের ওসি মানিক দাস বলেন, রাস্তার গা ঘেঁষে ভারী জিনিস সাজিয়ে যাঁরা ব্যবসা করছেন তাঁদের সতর্ক করা হবে। পরবর্তীতে কেউ নিয়ম ভাঙলে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।