লকডাউনের মাঝেই মাথাভাঙ্গা-২ ব্লক জুড়ে চলছে অবৈধ বালি, মাটি চুরি  

270

রাকেশ শা, ঘোকসাডাঙ্গা: দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। গৃহবন্দি সাধারণ মানুষ। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু দুষ্কৃতি দেদার মাটি বালি চুরি করছে বলে অভিযোগ। পুলিশ প্রশাসনের যোগ সাজশেই এমনটা হচ্ছে বলে দাবি স্থানীয়দের একাংশের। জানা গিয়েছে, মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের ট্রাক্টর, জেসিবি মালিকদের সঙ্গে মাসিক মোটা টাকার বিনিময়ে থানা থেকে অনুমতি নিতে হয়। মাসোহারা না দিলেই সেগুলোকে আটক করা হয়। মাসিক টাকা দিলে কোনও অসুবিধা নেই।

পুলিশি ঝামেলায় না গিয়ে একরকম পুলিশের অলিখিত অনুমতি নিয়েই ব্লক জুড়ে চলছে এই ব্যবসা। জানা গিয়েছে, মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের ঘোকসাডাঙ্গা, লতাপাতা, রুইডাঙ্গা, উনিশ বিশা সহ বেশ কিছু গ্রামপঞ্চায়েত এলাকায় জেসিবির সাহায্যে মাটি তুলে নিয়ে অবৈধ ভাবে বিক্রি করছে কিছু মানুষ। অনেকে আবার রোয়েলটি না দিয়েই মাটি খুঁড়ে কোথাও পুকুর খনন করছে, আবার কোথাও চলছে ভরাটের কাজ।

- Advertisement -

স্থানীয়দের একাংশের অভিযোগ, পুলিশ প্রশাসনের যোগসাজশ না থাকলে কিভাবে চলছে এই কারবার। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক বেশ কিছু ট্রাক্টরের চালক জানান, থানার তরফে এর জন্য পারমিশন নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মাথাভাঙ্গা-২ ব্লক বিএলআরও অভিষেক প্রসাদ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি জানার পর  বিভিন্ন জায়গায় অভিযান শুরু করা হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে পুলিশ জানিয়েছে, লকডাউনের জেরে হাটবাজার সহ বিভিন্ন দিক দেখতে হচ্ছে। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি। পুলিশের যোগসাজশের কথাটি ঠিক নয়।

অনেকের অভিযোগ, প্রায় সবসময়ই ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় চলে এই কারবার। যদি যোগসাজশ না থাকে তবে কেন পুলিশ প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। আবার অনেক সময়ে অভিযান চালিয়ে কারবারিদের আটক করা হলে মোটা টাকা নিয়ে রফা হয়। যদিও পুলিশ প্রশাসন এই সব কথা মানতে নারাজ। তারা বলছেন, এই অবৈধ কাজের বিরুদ্ধে লাগাতার অভিযান চালানো হচ্ছে।