স্কুল থেকে লক্ষাধিক টাকার চোরাই কাঠ উদ্ধার, চাঞ্চল্য

180

কালচিনি, ২২ জুলাইঃ করোনা সংক্রমণের জেরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু কাঠ মাফিয়া বন্ধ স্কুল ঘরেই চোরাই কাঠ মজুত করে, কাঠের চোরা কারবারে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। কালকিনি ব্লকের মেন্দাবাড়ি হাই স্কুলে চোরাই কাঠ মজুদের ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মঙ্গলবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জলদাপাড়া বন্য প্রান বিভাগের চিলাপাতা রেঞ্জের অধীন মেন্দাবাড়ি বিটের বনকর্মীরা ওই স্কুলে অভিযান চালিয়ে প্রচুর চোরাই সেগুন কাঠের গুঁড়ি উদ্ধার করেন। বন্ধ স্কুলের একটি ঘরের তালা ভেঙে দুষ্কৃতকারীরা চোরাই কাঠের গুঁড়ি ওই ঘরে মজুত রেখে বাইরে থেকে অন্য তালা লাগিয়ে রাখে বলে অভিযোগ। ঘটনার বিষয়ে তদন্তের দাবিতে কালচিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করে স্কুল পরিচালন কমিটি। কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ বসুমাতা জানিয়েছেন, লকডাউন চলতে থাকায় স্কুল বন্ধ রয়েছে। সেই সুযোগে দুষ্কৃতকারীরা স্কুল ঘরেই চোরাই কাঠ মজুত করেছে। তিনি আরও জানান, দুষ্কৃতকারীরা স্কুলের একটি কম্পিউটার চুরি করেছে। পুলিশকে ঘটনার তদন্ত করে দুষ্কৃতীদের ধরার দাবি জানানো হয়েছে।

বন দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, ৩১সি জাতীয় সড়ক লাগোয়া ওই স্কুলে চোরাই কাঠ মজুতের খবর পেয়ে মেন্দাবাড়ি বিটের বিট অফিসার তারকনাথ রায়ের নেতৃত্বে বনকর্মীরা মঙ্গলবার রাতে স্কুলটিতে অভিযান চালান। বনকর্মীদের সঙ্গে ছিলেন মেন্দাবাড়ি গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান মনা রাভা ও স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতি কৃষ্ণ বসুমাতা। স্কুলের একটি ঘরের তালা ভেঙে বনকর্মীরা দেখতে পান সেখানে ১৫ টি সেগুন কাঠের গুঁড়ি পড়ে রয়েছে। বিট অফিসার তারকনাথ রায় জানান, স্কুল ঘর থেকে প্রায় ৭০ সিএফটি চোরাই সেগুন কাঠ উদ্ধার করা হয়েছে। কাঠের বাজার মূল্য প্রায় এক লক্ষ টাকা। দুষ্কৃতীর দলটিকে ধরার চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

- Advertisement -

অন্যদিকে, কালচিনির অবর বিদ্যালয় পরিদর্শক রজতরঞ্জন ঘোষ জানান, ঘটনার বিষয়ে স্কুলের তরফে কিছু জানানো হয়নি। তবে, বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতি কৃষ্ণ বসুমাতা জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই ধরনের কাজ মেনে নেওয়া যায় না। স্কুলে রাতে নৈশপ্রহরী মোতায়েন করার দাবি জানান হবে। চিলাপাতার রেঞ্জ অফিসার সন্দীপ দাস জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত চলছে। এই ধরণের অভিযান চলতে থাকবে বলে তিনি জানান।