বিরাটকে আউট করা নিয়ে বড় কথা মইনের

চেন্নাই : করোনা জয় করেছেন কিছুদিন আগে।
যুদ্ধটা এবার বাইশ গজে। জয়ের অন্যতম শর্ত, বিরাট কোহলিকে দ্রুত প্যাভিলিয়নে পাঠানো। যদিও করোনা জয়ী মইন আলি জানেন না বিরাটকে কীভাবে আউট করবেন। মইনের অকপট স্বীকারোক্তি, আমি জানি না বিরাটকে কীভাবে আমরা আউট করব। কারণ, ওর কোনও দুর্বলতা আছে বলে আমি মনে করি না। অবশ্য আমাদের হাতে দারুণ বোলিং অ্যাটাক রয়েছে। বোলিং লাইনআপে গতির অভাবও নেই।

 

- Advertisement -

অস্ট্রেলিয়ায় দুরন্ত সাফল্যের পর বিরাটের উপস্থিতিতে টগবগ করে ফুটছে ভারত। মইনও তা মেনে নিয়ে বলেন, অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে দুরন্ত জয়ের পর বিরাটের অন্তর্ভুক্তিতে আরও উজ্জীবিত ওরা। বিরাট বিশ্বমানের ক্রিকেটার। সাফল্যের খিদে ওকে উদ্দীপনা জোগায়। অস্ট্রেলিয়ায় দলের দুরন্ত ক্রিকেট, প্রথম সন্তানের জন্ম আরও উদ্দীপ্ত করবে ওকে। শ্রীলঙ্কায় পা রাখার পর করোনা পজিটিভ। মইনের কথায়, এক দিনের জন্য জিভে কোনও স্বাদ পাচ্ছিলাম না। প্রচণ্ড মাথাব্যথা। জ্বর বা কাশি ছিল না। এখন আসন্ন সিরিজের দিকে তাকিয়ে আমি প্রস্তুত। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড পারফরমেন্সে দলকে জেতাতে নিজের ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে।

 

স্টুয়ার্ট ব্রড আবার অন্যরকম গল্প শোনালেন। ইন্দো-অজি ডুয়েলে ভারতের সমর্থক ছিলেন ইংল্যান্ড দলের অনেকেই। বলেন, অস্ট্রেলিয়া সফর সহজ নয়। গাব্বাতে অজিদের হারিয়ে সিরিজ জয়ে ভারতের আত্মবিশ্বাস আকাশছোঁয়া। এটুকু বলতে পারি, ব্রিসবেনের নির্ণায়ক ডুয়েলে ইংল্যান্ড দলের অনেকেই ভারতকে সমর্থন করেছে। মানসিক দৃঢ়তা, টিম স্পিরিট, ইচ্ছাশক্তির অসাধারণ উদাহরণ রেখেছিল ওরা। এত চোটআঘাতের পরও ভারত যা অর্জন করেছে, তা করতে পারলে বিশ্বের যেকোনও দল গর্বিত হবে।