উত্তর দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩০০ ছাড়াল

268

রায়গঞ্জ: উত্তর দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত মঙ্গলবার জেলায় মোট ১০ জনের আক্রান্তের খবর মিললেও আজ মালদার ভিআরডিএল ল্যাব থেকে করনদিঘির একজনের করোনা আক্রান্তের খবর মিলেছে।

গতকাল মালদা ভিআরডিএল ল্যাব থেকে ৮ জনের এবং রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজের ভিআরডিএল ল্যাব থেকে ২ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট মিলেছিল। আজ আরও ১ জনের শরীরে করোনার হদিস মিলল। রায়গঞ্জের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের কান্তনগরের বাসিন্দা এক দম্পতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের রায়গঞ্জের কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

- Advertisement -

দীর্ঘ ৭ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন ওই মহিলার স্বামী। কিন্ত তাঁর কোনওরকম উপসর্গ ছিল না। গতকাল ব্যাংকেও তারা গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন এলাকার কাউন্সিলার প্রসেনজিত সরকার। গতকাল তারা রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজে সোয়াব টেস্ট করেন। আজ রিপোর্ট আসলে দেখা যায় তাঁরা করোনায় আক্রান্ত। এরপর স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্মীরা তাদের উদ্ধার করে কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী এই জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩০১ জন। যদিও ইতিমধ্যে ২৩০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গত সোমবার রায়গঞ্জ কোভিড হাসপাতাল থেকে ১ জন ৭০ বছরের বৃদ্ধসহ মোট ৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। ওই বৃদ্ধ দিল্লি থেকে এসেছিলেন। জেলার দুটি কোভিড হাসপাতালে মোট ৬৯ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রায়গঞ্জ কোভিড হাসপাতাল থেকে কালিয়াগঞ্জের ৪ আশাকর্মী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

আইসোলেশনে একজন থাকলেও ইসলামপুরের আইসোলেশনে কোনও রোগী ভর্তি নেই। তবে এ পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনই মারা গিয়েছেন। যদিও তিনি শিলিগুড়িতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। জানা গিয়েছে, জেলায় উপসর্গহীন আক্রান্তের সংখ্যাই বেশি। তাই সংক্রমণ রুখতে সাধারন মানুষকে নানাভাবে সচেতন করছে স্বাস্থ্যদপ্তর।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন থেকে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজের ভিআরডিএল ল্যাবে জেলার সমস্ত ব্লকের সোয়াব টেস্ট শুরু হয়েছে। তাই মালদা ও উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে নতুন করে কোনও সোয়াব সংগ্রহ করে টেস্টের জন্য পাঠানো হচ্ছে না। পরিযায়ী শ্রমিকও জেলায় নতুন করে আর আসছে না। ফলে পজিটিভ কেসের সংখ্যা কমবে এটাই স্বাভাবিক।

স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় সুস্থতার হার ক্রমশ বাড়ছে। প্রায় ৮২ শতাংশের বেশি রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান জানিয়েছেন, মালদা মেডিক্যাল কলেজের ল্যাব থেকে  এই জেলার ৮ জনের পজিটিভ রিপোর্ট মিলেছে শুনেছি।