নামী কোম্পানির স্টিকার লাগিয়ে টিউবওয়েলের জল বিক্রি

386

দীপঙ্কর মিত্র, রায়গঞ্জ: টিউবওয়েলের জল ভরে তাতে নামী কোম্পানির স্টিকার ও লোগো লাগিয়ে বিক্রি করার অভিযোগ উঠল। রায়গঞ্জের পালপাড়ায় ভেজাল জল বিক্রি করতে গিয়ে হাতে নাতে ধরে ফেলেন রায়গঞ্জের কয়েকজন জল ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন ধরেই তার বিরুদ্ধে ভেজাল জল বিক্রির অভিযোগ উঠছিল। এই ঘটনায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্তে নেমেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জে বেশ কিছুদিন ধরেই ভেজাল জল বিক্রির একটা চক্রের খবর আসছিল। কিন্ত হাতে নাতে ধরতে পারছিলেন না কেউ। রবিবার রায়গঞ্জের অশোকপল্লীর পালপাড়ার ওই অভিযুক্তকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন স্থানীয়রা।

জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জের এক ব্যবসায়ী জয়দ্বীপ্ত বিশ্বাস জানতে পারেন তার কোম্পানির স্টিকার লাগিয়ে জল বিক্রি করা হচ্ছে। এরপর খোঁজ শুরু হয়। অন্যদিনের মতো রবিবারও টোটোতে করে জল বিক্রি নিয়ে বের হয়েছিলেন। রাস্তায় নিজেদের স্টিকার লাগানো জলের ড্রাম দেখে সন্দেহ হয় জয়দেব বাবুর। তিনি হাতে নাতে ধরে ফেলেন। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। জয়দ্বীপ্ত বাবু জানান, দীর্ঘদিন ধরে আমাদের কোম্পানির স্টিকার ও লোগো লাগিয়ে ভেজাল জলের ব্যবসা চলছে। কিছু নামধারী ব্যবসায়ী এই কাজ করছে।কিন্ত এতদিন খুঁজে পাচ্ছিলাম না। আজ পেয়ে গেছি। আগামীদিনে কারও কোনো ক্ষতি হলে তার দায়ভার কে নেবে? এ ব্যাপারে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

- Advertisement -

রায়গঞ্জের আরও একজন জল ব্যবসায়ী কৌশিক ভট্টাচার্য জানান, ‘রায়গঞ্জ শহরের মিলনপাড়া এলাকায় ভেজাল জলের কারখানার হদিস পেয়েছিলাম আমরা । প্রশাসনকে জানানো হয়। কিন্ত এই কারবার আজও বন্ধ হয়নি।’ অন্যদিকে, অভিযুক্ত জানান, ‘আমাকে জল দিয়ে যায়। আমি সেই জল বাড়ি বাড়ি সাপ্লাই করি। ভেজাল কিনা আমার জানা নেই।’ রায়গঞ্জ মার্চেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক অতনু বন্ধু লাহিড়ী বলেন, ‘যারা এই ধরনের ভেজাল জিনিসের কারবার করে তাদের সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক নেই। পুলিশকে আমরা বলেছি মূল দোষীকে গ্রেপ্তার করার জন্য।’ পুলিশ মূল অভিযুক্তের খোঁজে তদন্তে নেমেছে।