উত্তরে পালিত হল স্বাধীনতা দিবস

194
রায়গঞ্জ

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: সারা দেশের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও সাড়ম্বরে পালিত হল ৭৫তম স্বাধীনতা দিবস। রবিবার রায়গঞ্জ শহরের পতাকা মোড়ে ১০৫ ফুট উচ্চতার পতাকা উত্তোলন করেন পুরপিতা সন্দীপ বিশ্বাস, উপপুরপিতা অরিন্দম সরকার। রায়গঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন কাউন্সিলর ছাড়াও শহরবাসীরা উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি জেলা কংগ্রেসের তরফে এদিন বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘জাতীয় কংগ্রেসের তরফে দুটি নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তার অঙ্গ হিসেবে শনিবার সন্ধ্যায় স্বতন্ত্র সেনানী শহিদ সম্মান দিবস পালন করা হয়েছে। আজ দলের তরফে জাতীয় পতাকা নিয়ে রুট মার্চ করা হল।‘

বালুরঘাট

অন্যদিকে, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা প্রশাসনিক ভবন চত্বরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা শাসক আয়েশা রানি এ। পতাকা উত্তোলনের পর শহিদ বেদিতে ফুল দিয়ে শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জেলা শাসক। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা শাসক বিবেক কুমার, জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক শান্তনু চক্রবর্তী সহ অন্যান্য আধিকারিক ও বিশিষ্টজনেরা। পরবর্তীতে সিভিল ডিফেন্সের তরফে প্যারেড করা হয়। জেলা প্রশাসনিক ভবন চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান। পাশাপাশি বালুরঘাটে স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে শামিল চারটি অন্য দেশের নাগরিক। কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে দেশাত্মবোধক গানে মাতলেন সেই আবাসিকরা। তাদের মধ্যে কেউ মায়ানমারের, কেউ নাইজেরিয়ার আবার কেউ বাংলাদেশের নাগরিক।

- Advertisement -
শিলিগুড়ি

শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটে অনুষ্ঠিত হয় স্বাধীনতা দিবস। পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে দিনটি যথাযথ মর্যাদা দিয়ে পালন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন পুলিশ কমিশনার গৌরব শর্মা সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা।

কর্ণজোড়া

জেলা প্রশাসনের তরফে কর্ণজোড়া জেলাশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণে স্বাধীনতা দিবস পালন করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলাশাসক অরবিন্দ কুমার মিনা। ব্যান্ডে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন চতুর্থ আরক্ষা বাহিনীর কসবা ব্যান্ড। পুলিশের সশস্ত্র বাহিনীর রাষ্ট্রীয় স্যালুট এবং কুচকাওয়াজের মাধ্যমে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এরপর একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের পাশাপাশি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

আলিপুরদুয়ার

আলিপুরদুয়ার বিএড কলেজে ৭৫তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়। এদিন মনেয়ারপুলে কলেজ ক্যাপাসেই দিনটি পালন করা হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। কলেজের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিবেশিত একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও হয় এদিন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর দেব কুমার মুখোপাধ্যায়, আলিপুরদুয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ড: মহেন্দ্র নাথ রায়, আলিপুরদুয়ারের বিধায়ক সুমন কাঞ্জিলাল, প্রাক্তন বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী, উত্তরবঙ্গ সংবাদের জেনারেল ম্যানেজার প্রলয়কান্তি চক্রবর্তী।

স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষপূর্তিতে যক্ষ্মা ও এইডস মুক্ত সমাজ গড়ার আহ্বান জানাল জলপাইগুড়ি জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর। পাশাপাশি ১৮ থেকে ২৫ বছর বয়সি যুবক যুবতিদের রক্তদানে এগিয়ে আসতে উদ্বুদ্ধ করার প্রয়াসও চালানো হয় জেলার সর্বত্র। এদিন জলপাইগুড়ির সব কটি ব্লকের গ্রামীন হাসপাতাল, ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে জাতীয় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের কর্মসূচিতে যক্ষ্মা ও এইডস এপর সচেতনামূলক ফ্লেক্স টাঙিয়ে দিনটিকে উদযাপন করা হয়। ওই ৩ বিষয়ের ওপর জন আন্দোলন গড়ে তোলার শপথ নেন ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীরা।