আন্তর্জাতিক দাবা অলিম্পিয়াডে যুগ্মবিজয়ী ভারত-রাশিয়া

668

নয়াদিল্লি: আন্তর্জাতিক দাবা অলিম্পিয়াডে যুগ্মভাবে বিজয়ী হল ভারত ও রাশিয়া। রবিবার আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের (ফাইড) পক্ষ থেকে এই খবর জানানো হয়। ফাইড এই প্রথম দাবা অলিম্পিয়াডের প্রথম দফার প্রতিযোগিতা অনলাইন ফর্ম্যাটে আয়োজন করে।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা যায় ফাইনাল ম্যাচে। মনে হচ্ছিল ভারত হেরে যাবে। চূড়ান্ত রাউন্ডে ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার জন্য দুই ভারতীয় খেলোয়াড়কে পরাজিত বলে ঘোষণা করে ফাইড। অন্যদিকে, নিহাল সরিন এবং দিব্যা দেশমুখ সার্ভারের সঙ্গে সংযোগ হারিয়ে ফেলায় হতাশা নেমে আসে তাঁদের চোখে মুখে। কিন্তু এটা বলা বাহুল্য, চূড়ান্ত রাউন্ডের সংযোগ হারানোর আগে দেশমুখ বিজয়ী অবস্থানের দিকে এগিয়ে ছিলেন।

- Advertisement -

তাই এই ভাবে হারতে নারাজ ভারত। এরপর এই ফলাফলের বিরুদ্ধে ভারত সরকারিভাবে আবেদন করে যাতে সিদ্ধান্তটি তদন্ত করে পুনর্বিবেচনা করা হয়। এরপরই নড়েচড়ে বসে ফাইড কর্তৃপক্ষ। প্রায় এক ঘণ্টা স্থগিত রাখা হয় সম্পূর্ণ কার্যক্রম। এরপরই বিশ্ব দাবা সংস্থা তথা ফাইড-এর সভাপতি আরকাদি ডিভোরকোভিচ রাশিয়া এবং ভারত উভয় দলকেই স্বর্ণপদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন বলে জানা যায়।

https://twitter.com/FIDE_chess/status/1300074799469821952?s=19

সূত্রের খবর, ফাইনাল পর্বের আগে, প্রথম রাউন্ডে ৩-৩ পয়েন্টের পর নেটওয়ার্কের অচলাবস্থায় শেষ হয়েছিল খেলা। দ্বিতীয় রাউন্ডটিতে সারিন এবং দেশমুখের ইন্টারনেট বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর এক ধাক্কায় স্তর বিন্যাসে আর্মিজেডন ফিনিসনকে জয়ী বলে ঘোষণা করা হয়। কিন্তু এই সিদ্ধান্তকে এককথায় চ্যালেঞ্জ করে ফাইড-এর কাছে আর্জি জানায় ভারত।

উল্লেখ্য, আর্মেনিয়ার বিপক্ষে ভারতের কোয়ার্টার ফাইনালের জয়ও সার্ভার ক্রাশের অনুরূপ অভিযোগ উঠেছিল। আর্মেনিয়ান খেলোয়াড়রা জানান, তাঁরা ইন্টারনেট সংযোগ হারিয়ে ফেলেছে। তবে তাঁদের আবেদনটি বাতিল করে দেওয়া হয়েছিল। এরপরে ভারত সেমিফাইনালে পোল্যান্ডকে হারিয়ে রবিবারের ফাইনালে খেলার সুযোগ ছিনিয়ে নেয়।