ওয়াশিংটন, ২১ ফেব্রুয়ারিঃ জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে কার্বন বেশি নির্গত হয়। অতিরিক্ত কার্বন নির্গমনের ফলে দ্রুত তেতে উঠছে পৃথিবী। বিশ্ব উষ্ণায়ন রুখতে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে বসুন্ধরার উষ্ণতাবৃদ্ধির যে নির্দিষ্ট সীমারেখা বেঁধে দেওয়া হয়েছিল, তা পরিপূরণে অনেক দেশ এখনও কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। পদক্ষেপ গ্রহণে সর্বাধিক সমস্যার মুখে ভারত বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অন্যতম ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী তথা নিউ ইয়র্কের মেয়র মাইকেল ব্লুমবার্গ। বুধবার লাস ভেগাসের বিতর্ক সভায় ভারতের কথা উল্লেখ করলেও, প্যারিস চুক্তি থেকে বেরিয়ে গিয়ে তাঁর দেশ যে উচিৎ কাজ করেনি সেকথা জানাতেও ভোলেননি তিনি। জলবায়ু পরিবর্তন তথা বিশ্ব উষ্ণায়ন রুখতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পদক্ষেপকে ‘হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছেন এই ডেমোক্র্যাট নেতা।

বিশ্ব উষ্ণায়ন ঠেকাতে ২০১৫ সালে প্যারিসে একটি চুক্তি হয়েছিল। আমেরিকা চুক্তিতে সই করলেও ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, আমেরিকা এই চুক্তি মানবে না। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ট্রাম্পের ওই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে ব্লুমবার্গ জানান, আমেরিকা বিশ্বকে নেতৃত্ব দেয়। এত বড় একটি বিষয়ে তার পিছু হঠা দৃষ্টিকটু। তিনি বলেন, ‘আসুন আমরা শুরু করি। আপনি যদি প্রেসিডেন্ট হন তাহলে আপনার প্রথম কাজ হবে প্যারিস চুক্তিকে মান্যতা দেওয়া। আমেরিকা যা করল তা হাস্যকর।‘ এই প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন ব্লুমবার্গ।

প্রেসিডেন্টের প্রাইমারি নির্বাচনে অনেকটা পিছিয়ে যাওয়া জো বাইডেন বিশ্বদূষণে অবশ্য চিনকে দুষেছেন। তিনি বলেন, ‘চিনের বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পে আছেটা কি? পরিবেশের পক্ষে সবচেয়ে ক্ষতিকারক যে জ্বালানি সেই কয়লাই তো ওই পথ দিয়ে সরবরাহ করা হবে গোটা বিশ্বে।’

তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে প্রচুর কার্বন নির্গত হয়। ভারতে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের সংখ্যা বেশি। রাতারাতি সেগুলি বন্ধ করে দেওয়া সম্ভব নয়। ব্লুমবার্গ অবশ্য এবিষয়ে কিছু খোলসা করেননি। সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৫৩০টি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের মধ্যে ৩০৪টি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ইউরোপে বন্ধ হয়েছে ৮০টি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র।